২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
বিখ্যাত মনীষীদের দৃষ্টিতে যেমন ছিলেন মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ২৫ বছরেও শান্তি ফেরেনি পাহাড়ে ! বাস্তবায়ন হয়নি পার্বত্য শান্তিচুক্তির অধিকাংশ ধারা বাকেরগঞ্জে ককটেল বিস্ফোরণ ! আটক-৩, সাড়াশি অভিযান চলছে শেবাচিম পরিচালক ও চিকিৎসকের উপর ক্ষুব্ধ হলেন স্বাস্থ্য সচিব চালককে অজ্ঞান করে ইজিবাইক ছিনতাই নবায়ন ও ট্রেড লাইসেন্সবিহীন প্রতিষ্ঠানের খোঁজে মাঠে বিসিসি বরিশালে চুরি হওয়া ১৭টি মোবাইল উদ্ধার করে মালিকদের হস্তান্তর জিপিএ-৫ পেয়েও অর্থের অভাবে কলেজে ভর্তি হওয়া অনিশ্চিত কেয়া’র বিয়ের আসরেই স্ত্রীকে চুমু দেওয়ায় ‘ডিভোর্স’! বন্ধুর স্ত্রীর গোসলের ভিডিও ধারণ, অতঃপর. . . . .. .

মিডিয়ায় নারীর প্রতীকী নেতৃত্বের দিন শেষ হোক- নাঈমুল ইসলাম খান

নাঈমুল ইসলাম খান: [১] বিশ্ব নারী দিবস ৮ মার্চ। বাংলাদেশের কিছু কিছু প্রতিষ্ঠানে নারী কর্মীদের নেতৃত্বের ভূমিকায় বসানো হবে। এই চর্চা চলছে বেশ অনেক বছর।

[২] দৈনিক ‘আমাদের নতুন সময়’, দৈনিক ‘আমাদের অর্থনীতি’, ডেইলি ‘আওয়ার টাইম’ এবং ‘আমাদের সময়.কম’ প্রতিষ্ঠানগুলোতে সেই দিন আর নেই।

[৩] ডেইলি আওয়ার টাইম শুধু নারী নেতৃত্বে চলে তা নয়, এর সকল সম্পাদকীয় কর্মীও নারী।

[৪] দৈনিক ‘আমাদের নতুন সময়’, দৈনিক ‘আমাদের অর্থনীতি’, ডেইলি ‘আওয়ার টাইম’ এবং ‘আমাদের সময়.কম’ এই সবগুলো পত্রিকারই সম্পাদক নাসিমা খান মন্টি। এর কোথাও কোনো নারীকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য ‘বিশ্ব নারী দিবস’ উপলক্ষ্যে সাময়িক দায়িত্ব প্রদানের সুযোগ নেই।

[৫] দৈনিক ‘আমাদের অর্থনীতি’ এবং ডেইলি ‘আওয়ার টাইম’ এই দুই পত্রিকার ‘এডিটর ইনচার্জ’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন যথাক্রমে, প্রখ্যাত সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি এবং অ্যাডভোকেট তাসমিয়া নুহিয়া আহমেদ।

[৬] দৈনিক ‘আমাদের নতুন সময়’ সংবাদ পরিবারে নারীকে লোক দেখানো নেতৃত্বে বসানোর কোনো সুযোগ নেই।

[৭] আমরা গর্বিত যে, ডেইলি আওয়ার টাইম কেবল নারী সাংবাদিক দ্বারা পরিচালিত। আমরা গর্বিত আমাদের চার প্রতিষ্ঠানেরই সম্পাদক এবং ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নারী।

[৮] আমাদের যিনি সম্পাদক, যারা ‘এডিটর ইনচার্জ’ তারা নামে মাত্র সম্পাদক নন, তারা পূর্ণ দায়িত্ব পালনকারী দাপুটে সম্পাদক।

[৯] বাংলাদেশের একাধিক জাতীয় সংবাদপত্রে সম্পাদক পদে বিখ্যাত নারীর নাম ছাপা হয় কিন্তু তারা সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন না। আমরা আহ্বান জানাই তারা অচিরেই নিজ উদ্যোগে সম্পাদকের স্বাভাবিক প্রচলিত সকল দায়িত্ব পালন করবেন এবং বাংলাদেশের সংবাদপত্রে নারী নেতৃত্বকে আরও সুপ্রতিষ্ঠিত করবেন। আমরা প্রত্যাশা করি বাংলাদেশের প্রধান প্রধান গণমাধ্যমের শীর্ষ নেতৃত্বে আরও যোগ্য নারীকে দেখবো খুব শিগগিরই ।

[১০] কেবল শীর্ষ সম্পাদকের দায়িত্ব নয়, সংবাদপত্রের বিভিন্ন পর্যায়ে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে নেতৃত্বমূলক অপরাপর গুরু দায়িত্বেও নারী অধিকসংখ্যক নেতৃত্বমূলক ভূমিকায় অবতীর্ণ হবেন সেটা আমাদের বিশেষ প্রত্যাশা।

[১১] আমরা অত্যন্ত আনন্দিত যে, আমাদের প্রতিষ্ঠানে ৩৫ জন নারী-কর্মী যুক্ত রয়েছেন। কিন্তু আমরা পিছিয়ে রয়েছি আমাদের প্রতিষ্ঠানগুলোতে সামগ্রিকভাবে নারী পুরুষ সংখ্যায় সমানে সমান নয় বলে। অবশ্য আমরা এই লক্ষ্য অর্জনে আন্তরিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।

অনুলেখক: সাংবাদিক নাজমুল হক মুন্না (উজিরপুর)বরিশাল

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ