১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
মহাসড়কে যানবাহনের গতিসীমা নিয়ন্ত্রণ করতে বরিশাল জেলা প্রশাসনের অভিযান পটুয়াখালীর দুমকিতে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী  উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠান বরিশালে গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক বানারীপাড়ায় তহশিলদার ও সার্ভেয়ারের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ প্রিজন সেলে হাজতিকে হত্যার দাবি স্বজনদের, কারারক্ষীসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দাম বেড়ে ফের রেকর্ড, স্বর্ণের ভরি ১ লাখ ২০ চরকাউয়া ইউনিয়ন যুবলীগের মতবিনিময় সভায় খান মামুন রাজাপুরে গ্যাস সিলিন্ডার লিক হয়ে মাইক্রোবাসে আগুন পিরোজপুরে তুচ্ছ ঘটনায় যুবককে পিটিয়ে জখম পটুয়াখালীতে মালিক সমিতির সভাপতির বাসকে জরিমানা, দেড় ঘণ্টা মহাসড়ক অবরোধ

মুক্তিযোদ্ধাদের দেখে আমরা অনুপ্রাণিত হই : পুলিশ কমিশনার

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম-বার বলেছেন, আমরা বীর পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদের উত্তরসূরী, এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের। মুক্তিযোদ্ধাদের দেখে আমরা অনুপ্রাণিত হই। আপনারা মুক্তিযোদ্ধারা বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে যে স্বপ্ন নিয়ে, যে লক্ষ নিয়ে, যে চেতনা নিয়ে দেশটাকে স্বাধীন করেছিলেন। আপনাদের সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে আপনাদের যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারক ও বাহক হিসেবে, একটি স্বাধীন, সার্বভৌম ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ব্রত নিয়ে বর্তমান আইজিপি মহোদয় এর নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে চলছি।

আজ বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) ১২ টায় অফিসার্স মেস সম্মেলন কক্ষে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের আয়োজনে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী পুলিশ সদস্যদের অবদান স্মরণে, বীর মুক্তিযোদ্ধা পুলিশ সদস্যদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বীর পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশ্যে তিনি একথা বলেন।

এসময় পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত ও গীতা পাঠের মধ্য দিয়ে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের শুরুতেই পুলিশ কমিশনার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আগত সকল বীর পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদেরকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন এবং মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে উপহার সামগ্রী তুলে দিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে পরিচয় পর্ব শেষে তার বক্তব্যে বলেন, ‘আপনারা আমাদের গর্বের ধন, আপনারা আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস। মুক্তিযুদ্ধে আপনাদের অসামান্য অবদানের জন্যই আমরা একটি স্বাধীন দেশ পেয়েছি। বাংলাদেশ পুলিশের রয়েছে একটি গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস। মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ পুলিশই সর্ব প্রথম নিজের জীবন বাজি রেখে সশস্ত্র প্রতিরোধ গড়ে তুলে দেশটাকে স্বাধীন করেছিল।

 

পুলিশ কমিশনার আরও বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি তথা পাকিস্তানের দোসররা মুক্তিযুদ্ধের সময় ধর্মকে স্বাধীনতার মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দেশের স্বাধীনতাকে বাধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টা করেছিল।তারাই আজ আবার জাতির পিতার ভাস্কর্য ভেঙে ধর্মকে জাতীয় সত্তার বিরুদ্ধে, সংস্কৃতির বিরুদ্ধে দাঁড় করানোর ষড়যন্ত্র করছে। সেই জায়গায় যেন আমরা সবাই সতর্ক থাকি, সচেতন থাকি। স্বাধীনতা রক্ষার জন্য আমাদেরকে নিরন্তন সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে।

এ সময় অতিঃ পুলিশ কমিশনার প্রলয় চিসিম বলেন, ‘আপনাদের আলোয় আমরা আলোকিত, আপনাদের অভিজ্ঞতা আমাদের চলার পথের পাথেয় । আপনারা স্বাধীনতা অর্জন করেছেন, আর সেই স্বাধীনতা রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব। আপনাদের উত্তরসূরি হিসেবে এ দেশটাকে ভালোবেসে স্বাধীনতা রক্ষার জন্য আমরা সংগ্রাম চালিয়ে যাব। একটি স্বাধীন সার্বভৌম ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ায় আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

সর্বশেষ