৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

রাঙ্গাবালীতে মৎস্য ব্যবসায়ীকে মারধর করায় আদালতে ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

তারিখঃ ১৭ জুন ২০২২

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ
পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে মৎস্য ব্যবসায়ী মো. নাসির উদ্দিন (৩২) কে মারধর করায় আদালতে ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) মৎস্য ব্যবসায়ী মো. নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে গলাচিপা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করেন। আসামীরা হলেন সোহেল সিং, জামাল সিং, কামাল সিং, লোকমান চৌকিদার ওরফে বেলায়েত, সাইদী খা, জুবায়ের আকন, মনু আকন মেহেদী সিকদার, সাহেব আলী সরদার, জাকির শরিফ, শাহিন সিং, আকবর সিং, হাসিবুল সিং, বনি আমিন জোমাদ্দার, রাব্বি সিং, সাগর প্যাদা ও নয়ন গাজী। গলাচিপা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের ফাঁড়ি ইনচার্জকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেন। উল্লেখ্য মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৩ জুন সোমবার আনুমানিক সাড়ে ১০ টার দিকে চরমোন্তাজ ইউনিয়নের চরআন্ডা গ্রামের রুহুল গাজীর বসত ঘরের ভিতরে আসামীরা ধারালো দা, লোহার রড, বাঁশের লাঠি দিয়ে এলোপাথারীভাবে পিটিয়ে নাসির উদ্দিনকে গুরুতর আহত করে এবং পকেটে থাকা টাকা পয়সা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ ও এলাকাবাসী উদ্ধার করে নাসির উদ্দিনকে ওইদিন গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মাহাবুব রহমান বলেন, নাসির উদ্দিন আমার চিকিৎসাধীনে ৩য় তলার ১৩ নম্বর বেডে ভর্তি আছে। তার মাথায় ও মুখমন্ডলে সেলাই আছে। শরীরের বিভিন্ন অংশে ফুলা জখমের চিহ্ন আছে। এ বিষয়ে চরমোন্তাজ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু মিয়ার কাছে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। চরমোন্তাজ ফাঁড়ি ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান জানান, মামলার তদন্ত কপি আদালত থেকে ফাঁড়িতে আসলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দেওয়া হবে। এ বিষয়ে মামলার বাদী আহত নাসির উদ্দিন জানান, মামলা করে হুমকির মুখে আছি। আসামীরা আমাকে যেকোন সময় মেরে ফেলতে পারে। তারা আমাকে মৃত্যুর হুমকি দেয়।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ