২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

শিকল দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে কিশোর নির্যাতনের ঘটনায় ৩ জন আটক

সজ্ঞিব দাস,গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি পটুয়াখালীর গলাচিপায় চুরি অপবাদ দিয়ে মুন্না (১৬) নামে এক কিশোরকে লোহার শিকলে বেঁধে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর ওই কিশোরের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগের প্রেক্ষিতে এ ঘটনায় জরিত তিন জনকে গ্রেফতার করেছে গলাচিপা থানা পুলিশ। শুক্রবার বিকেল ৫ টার দিকে উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের বাড়ি থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হচ্ছে ওই কোশেররের মামী মমতাজ (৪৫), মামাতো বোন তানিয়া (৩০) এবং প্রতিবেশি শামীম (৪০)।গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান, চুরির অপবাদে গাছে বেঁধে কিশোরকে নির্যাতনের অভিযোগে ৩ জনকে আটক করা হয়েছে এবং এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
তিনি জানান, কিশোর মুন্নার বাবা নিজাম রাড়ি ঢাকায় দিনমজুরের কাজ করেন এবং তার সৎ মা ঘর তালাবদ্ধ করে কয়েকদিন আগে তার স্বামীর কাছে ঢাকায় বেড়াতে যান। এসময় মুন্না একই বাড়িতে তার মামার ঘরে থাকতো। ৯ মে রাতে মামার ঘরে ঘুমাতে গিয়ে মুন্না তার মামাতো বোন তানিয়ার স্বামীর ব্যাগে রাখা ৮০ হাজার টাকা চুরি করে। এ অভিযোগে রাতে মুন্নাকে গাছের সাথে বেঁধে কয়েক দফায় মারধর করা হয়। নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ভাইরাল হলে বিষয়টি জানাজানি হয়। তবে ঘটনার পর থেকে কিশোর মুন্না নিখোঁজ রয়েছে। ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায়, কিশোরকে একটি গাছের সঙ্গে লোহার শিকলে বেঁধে বোয়ালিয়া রাড়ি বাড়ির হজরত আলী নামে এক ব্যক্তি তাকে মারধর করছেন আর আশপাশে দাঁড়িয়ে দেখেছেন ওই বাড়ির লোকজন। এ সময় অনেককে ভিডিও করতেও দেখা গেছে। মারধরে কিশোরের শরীরে রক্তাক্ত জখম হতেও দেখা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ