৬ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ, ১৩ বছর পরে ফিরলেন যুবক

অনলাইন ডেস্ক :: পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়ার পর ১৩ বছর পরে মিলন আকন (৩০) নামের এক যুবক তার পরিবারের কাছে ফিরেছেন।

বরগুনার তালতলী থেকে বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) দুপুর ১টার দিকে মিলনকে বাড়িতে নিয়ে আসেন তার মা মিনারা বেগম। মিলন কুয়াকাটা পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের শাহ-আলম আকনের বড় ছেলে। মিলনকে দেখতে এলাকার বিভিন্ন মানুষ ভিড় করছেন।

 

মিলনের বাবা শাহ-আলম আকন বলেন, ‘ছেলে মিলন ২০০৮ সালে সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়েছিল। তার সঙ্গে ফারুক (১২), খোকন (২৫) নামে আরও দুজন ছিল। কেউই ফেরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজি করেছি তাদেরকে। হঠাৎ দুদিন হলো শুনতে পেয়েছি আমার ছেলে মিলনকে নাকি পাওয়া গেছে বরগুনার তালতলীতে। পরে ওর মা গিয়ে নিয়ে আসছে এবং এটা যে আমার ছেলে তা আমি পুরোপুরি নিশ্চিত।’

ফিরে আসা মিলন বিয়ের চার মাস পরে নিখোঁজ হয়েছিলেন। নিখোঁজের ছয় বছর পরে তার স্ত্রী পাখিকে পরিবারের সবাই মিলে অন্য জায়গায় বিয়ে দিয়ে দেন।

 

মিলনের মা মিনারা বেগম বলেন, ‘ছেলেকে দীর্ঘ ১৩ বছর পর আমার বুকে ফিরে পেয়েছি। আমি অনেকদিন এই সাগর পাড়ে ছেলের খোঁজে দিন কাটিয়েছি। আজ আমার আর কোনোকিছু চাওয়ার নেই, আমার ছেলেটা এখন মানসিক অসুস্থ। আমি এখন ওরে চিকিৎসা করাবো ও সুস্থ হলে বলতে পারবো ও এতদিন কোথায় ছিল।’

কুয়াকাটা পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনির শরীফ বলেন, ‘আমার ওয়ার্ডে মিলন নামের এক ছেলে ২০০৮ সালে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছিল, আজকে তাকে তার পরিবার তালতলী থেকে বাড়িতে নিয়ে আসে। তার বাবা, মা ও পরিবারের লোক তার গায়ে থাকা যে কাটা দাগের কথা বলছে তা পুরোপুরি মিলছে এবং সঙ্গে কাজ করা জেলেদের মাধ্যমে আমি মিলনের পরিচয় নিশ্চিত হয়েছি।’

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ