২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

সিরাজগঞ্জে উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতিক বরাদ্দ প্রদান

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সেলিম শিকদার সিরাজগঞ্জঃ-

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম দফায় অনুষ্ঠিতব্য সিরাজগঞ্জের তিনটি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহনকারী প্রার্থীদের মাঝে প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

এতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে অংশ গ্রহনকারী মোট ৩১ জন প্রার্থীদেরকে সমঝোতা ও লটারির মাধ্যমে প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয়।

গত (২৩ এপ্রিল ২০২৪ ইং) মঙ্গলবার সকাল দশটা থেকে জেলা নির্বাচন অফিসের হলরুমে প্রতিক বরাদ্দ প্রদান অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিক বরাদ্দের সময় প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনার কাজে বিভিন্ন বিধি বিধান মেনে চলার বিষয়ে অবগত করে তা মেনে চলার নির্দেশনা দেন রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম।

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম দফায় সিরাজগঞ্জ সদর, বেলকুচি ও কাজিপুর উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম জানান,
ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিধিমালা অনুযায়ী গত (২১ মার্চ ২০২৪ইং) তারিখে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক তফসিলে বর্ণিত ও ঘোষনা অনুযায়ী ১৫ এপ্রিল ২০২৪ ইং তারিখ সোমবার রিটার্নিং অফিসার/সহকারী রিটার্নিং অফিসারের নিকট অনলাইনের মাধ্যমে

নির্বাচনে অংশ গ্রহণকারী প্রার্থীগন তাদের মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। ১৭ এপ্রিল প্রার্থীদের আবেদন কাগজ পত্র যাচাই বাছাই।

১৮- থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত আপিল। ২১ এপ্রিল আপিল নিষ্পত্তি। ২২ এপ্রিল প্রার্থিতা প্রত্যাহার শেষে আজ ২৩ এপ্রিল ২০২৪ নির্বাচনে অংশ গ্রহণকারী সকল প্রার্থীদের মাঝে প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হলো।

আগামী ৮ মে ২০২৪ ইং তারিখে সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত ইভিএম এর মাধ্যমে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। এতে তিনটি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে মোট ১১ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণকারী কাজিপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী শতস্ফুর্ত ভাবে তার প্রস্তাবক ও সমর্থক সহ সকল নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে সাংবাদিকদের বলেন,

গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের সভাপতি বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং দলীয় নীতিনির্ধারকদের নির্দেশনা মোতাবেক উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এবার

কোন দলীয় প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয় নাই।

এবারের নির্বাচনে সকল প্রার্থীদেরকে রিটার্নিং অফিসার/সহকারী রিটার্নিং অফিসার কর্তৃক সকল প্রার্থীদের উপস্থিতিতে সমঝোতা ও লটারির মাধ্যমে বরাদ্দ দেওয়া প্রতিক নিয়েই সকলকে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে হবে।

এসময় তিনি আরো জানান, নির্বাচনী

রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ কারী

সকল প্রার্থীদের সমঝোতা ও লটারির মাধ্যমে প্রতিক বরাদ্দ দিয়েছেন।

এতে কাজিপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আমরা মোট তিনজন অংশ গ্রহণ করেছি।

আজ লটারির মাধ্যমে আমাদের প্রতিক দেয়া হয়েছে। সকল প্রার্থীদের উপস্থিতিতে লটারির মাধ্যমে প্রাপ্ত আমার প্রতিক আনারস পেয়ে আমি এবং আমার কর্মী সমর্থক সকলেই খুবই খুশি হয়েছি। এবারের নির্বাচনে ইভিএম এর মাধ্যমে সুস্থ পরিবেশে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। বিগত সময়ে উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়ে গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক কাজিপুরের সকল উন্নয়ন সাফল্য কর্মকান্ডে সিরাজগঞ্জ-১ কাজিপুর আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় এমপি মহোদয়ের দিকনির্দেশনা
উপজেলা সদর, একটি পৌরসভা সহ উপজেলার মোট ১২ টি ইউনিয়নের সকল জনসাধারণের পাশে থেকে কাজ করেছি।
এবারের নির্বাচনেও কাজিপুর উপজেলাবাসী আমাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন। এবং আবারও জয়লাভের জন্য তিনি শতভাগ আশাবাদী বলে জানান।

সর্বশেষ