১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সেপটিক ট্যাঙ্কে নেমে দু’জনের মর্মান্তিক মৃত্যু

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

এম.এ.আর নয়ন, চুয়াডাঙ্গা:

চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গায় নির্মাণাধীন বাড়ির সেপটিক ট্যাঙ্কের পানি পরিষ্কার করতে নেমে গৃহকর্তার মেয়ে আসমা খাতুন (১৬) ও দোকান কর্মচারি হাসিবুল ইসলামের (২৮) মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) বিকাল ৪টার দিকে কার্পাসডাঙ্গা বাজার এলাকায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা বাজার পাড়ার এরশাদুল ইসলাম পেশায় একজন মুদি দোকানি। বাড়ির সাথেই তার দোকান। বাড়ির একাংশে তিনি নতুন করে নির্মাণ করছেন সেপটিক ট্যাঙ্ক। গত দু’দিনের টানা বৃষ্টির পানি ওই ট্যাঙ্কে জমার কারণে এরশাদুল ইসলামের মেয়ে আসমা খাতুন সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে ট্যাঙ্কের ভেতরে নামে। ট্যাঙ্কে নামার পর অনেকক্ষণ তার কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে তাকে খুঁজতে ওই ট্যাঙ্কে নামে দোকান কর্মচারী হাসিবুল ইসলাম।

পরে তারও কোন সাড়াশব্দ না পাওয়ায় খবর দেওয়া হয় স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্প ও ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে।
দ্রুত সেখানে উপস্থিত হয় কার্পাসডাঙ্গা পুলিশ ফাঁড়ি ও দর্শনা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সদস্যরা। সেপটিক ট্যাঙ্ক থেকে দুজনের মৃতদেহ উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে সেপটিক ট্যাঙ্কের ভেতর বিষাক্ত গ্যাস তৈরি হয়ে অক্সিজেন স্বল্পতার কারণে দম বন্ধ হয়ে তারা মৃত্যুবরণ করেছে।

সেপটিক ট্যাঙ্কে নেমে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে এমন খবর নিশ্চিত করেছেন দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি আব্দুল খালেক।

সর্বশেষ