১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

স্ত্রীর সাথে অভিমান করে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেয়া স্বামীর মৃত্যু

শামীম আহমেদ :: দাম্পত্য কলহের জেরধরে স্ত্রীর সাথে অভিমান করে আত্মহত্যার জন্য নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে চারদিন পর্যন্ত মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মারা গেছেন দুই সন্তানের জনক সাগর ফকির (২৫)।

সোমবার বেলা এগারোটার দিকে ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায মৃত্যুবরন করা সাগর ফকির জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার বাকাল গ্রামের ভ্যানচালক লিয়াকত ফকিরের পুত্র।

জানা গেছে, নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করা সাগরকে বাঁচাতে এগিয়ে এসে আগুনে ঝলসে গুরুত্বর আহত হওয়া তার (সাগর) চাচাতো ভাই রমজান ফকিরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য আগৈলঝাড়া হাসপাতাল থেকে রবিবার বিকেলে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। অপর আহত সাগরের মা আমেনা বেগম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সাগরের মৃত্যুর বিষয়টি তার বাবা লিয়াকত ফকির নিশ্চিত করে জানান, দাম্পত্য কলহের জেরধরে সাগরের স্ত্রী রাশিদা বেগম তার দুই মেয়েকে নিয়ে বাবার বাড়ি মাদারীপুরের খোয়াজপুর টেকেরেহাটে অবস্থান করছে। শুক্রবার বিকেলে সাগর তার স্ত্রীর সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলে মেয়েদের নিয়ে বাড়িতে আসার জন্য অনুরোধ করে ব্যর্থ হন। একপর্যায়ে স্ত্রীর সাথে অভিমান করে সাগর ঘরের দরজা বন্ধ করে গায়ে কেরোসিন ঢেলে নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এসময় সাগরকে উদ্ধার করতে এগিয়ে এসে তার চাচাতো ভাই রমজান ফকির আগুনে ঝলসে যায়। সাগরের মা আমেনা বেগমেরও দুইহাত আগুনে পুড়ে যায়।

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসকেরা সাগরকে তাৎক্ষনিক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করেন। অগ্নিদগ্ধ সাগর শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। অপরদিকে আগুনে পুড়ে যাওয়া রমজানকে তিনদিন চিকিৎসা শেষে রবিবার বিকেলে আগৈলঝাড়া উপজেলা হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। অপর আহত সাগরের মা আমেনা বেগম উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ