২০শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ভালোভাবে যাচাই বাছাই না করেই হুট করে একজনকে মডেল বা অভিনেত্রী বলাটা অন্যায় নয়কি – মনির হোসেন জীবন

এ আল মামুন, বিনোদন ডেস্কঃ নাট্যকার, প্রযোজক ও পরিচালক মনির হোসেন জীবন, বিগত ৩১ বছর ধরে যুক্ত আছেন মিডিয়ার সাথে, কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদ স্যারের বহু আলোচিত নাটক, সিনেমা তৈরি হয়েছে এই পরিচালকের হাতে ছোয়ায়। বিশেষ করে “আজ রবিবার” নামে একটি ধারাবাহিক নাটক পরিচালনার মাধ্যমে তিনি জনপ্রিয়তার উচ্চ শিখরে পৌছে যান, শুধু বাংলাদেশ নয়, ইন্ডিয়ার টেলিভিশন ও তার পরিচালিত ধারাবাহিক নাটক “আজ রবিবার” হিন্দিতে ডাবিং করে প্রচার করেছে।

আজ সেই জনপ্রিয় পরিচালক মিডিয়ার কিছু কথিত বা স্বঘোষিত মডেল বা অভিনেত্রী নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন, সেই সাথে মিডিয়া সাংবাদিক ভাইদের কিছু অনুরোধ করেছেন।
আমার ইনবক্সে পাঠানো মনির হোসেন জীবন ভাইয়ের লেখাটা হুবাহু তুলে ধরা হলো পাঠিকদের জন্য।

ওরা কিসের মডেল ?
কিসের অভিনেত্রী ?
মঞ্চ/থিয়েটার ? টিভি নাটক ? চলচ্চিত্র ?

ভালভাবে যাচাই বাছাই না করেই, দায়িত্বজ্ঞানহীন ভাবে হুট করে একজনকে মডেল অভিনেতা/অভিনেত্রী বা শিল্পী বলাটা অন্যায় নয়কি ?

সেই মডেল/ অভিনেত্রী নামধারী অমানুষটি বিটিভির তালিকা ভুক্তিতে তার নাম আছে কি না ? অথবা টেলিভিশন অভিনয় শিল্পী সংঘে নাম আছে কি না ? চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে নাম আছে কি না ? কোন‌ থিয়েটারের সদস্য কি না ? উপস্থাপনা সংগঠনে নাম আছে কি না ? নৃত্য শিল্পী কি না ? সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে নাম আছে কি না অথবা কোন‌ টিভি চ্যানেলের অন্তর্ভুক্ত/ নিবন্ধকৃত শিল্পী কি না ? অথবা এমন সংগঠনের সদস্য কি না, তা যাচাই বাছাই করে উপাধি দেয়া উচিত নয় কি ?

বর্তমানে ইউটিউবে অনেক ধরনের কমিক নাটক হচ্ছে, অশ্লিল হাসির নাটক হচ্ছে ?
ভাইরাল হওয়ার জন্য ব্যাক্তিগত মোবাইলে কিছু উগ্র ভিডিও ধারণ করে স্বঘোষিত টিকটক মডেল হচ্ছে ! এমনকি বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠানে নাচ বা অভিনয় করে এমন অনেককেই দেখা যায় ফেসবুকের আইডিতে লিখে মডেল/অভিনেত্রী !!
তারা কি আসলেই মডেল কিংবা অভিনেত্রী !

আবার অনেকেই আছে পতিতাবৃত্তি করে, তার শারীরিক রেট বাড়ানোর জন্য মডেল/অভিনেত্রী নিজের উপাধিতে লিখে থাকে ! আসলে তাদেরকে মডেল/ অভিনেত্রী/ শিল্পী বলাটা কতটা যৌক্তিক ?

ভালভাবে যাচাই বাছাই না করে যারা স্বঘোষিত মডেল/ অভিনেত্রীকে ……….
মডেল অভিনেত্রী/ শিল্পী তকমা লাগিয়ে দেয়াটা প্রকৃত শিল্পীর সম্মানে আঘাত করা/ অসম্মান করা/ কুলষিত করা/ বিতর্কিত করা নয় কি ?

স্বঘোষিত এইসব মডেলদের নিয়ে ক্রমাগত তার আদ্যপান্ত জীবনী নিয়ে নিউজ করে যাচ্ছেন “মডেল” নামক শব্দটি দিয়ে !
কিন্তু এই তথ্যটি দিচ্ছেননা সে কিসের মডেলিং করেছে ! কোন নাটকে অভিনয় করেছে ! কবে কাজটি করেছে ! বর্তমানে সে মডেলিং পেশায় আছে কি না !
প্রযুক্তির এই যুগে “গুগলে” সার্চ দিলে তার মডেলিং অথবা কোন নাটকে অভিনয় করেছে এমন তথ্য পাওয়া যায় কি না !

আমি আমার মিডিয়ায় ৩১ বছরের ক্যারিয়ারের অভিজ্ঞতা থেকে দায়িত্ব নিয়ে বলছি…
বিলাসী জীবন যাপন করার জন্য এক শ্রেনীর মেয়েরা স্বপ্নের মিডিয়ার নাম ভাঙিয়ে তারা “রাতের রানী” হয়ে উঠছে।

এক শ্রেনীর কামুক পুরুষের কাছে মডেল অভিনেত্রী কথিত নামধারী মেয়েদের কদর অনেক বেশী। এই সুযোগে কিছু নষ্ট ও উচ্চ বিলাসী দূষ্টু মেয়েরা কোন পরিচালক/নায়ক/নায়িকাদের সাথে সেলফি তুলে তা তার ফেসবুকে আপলোড দেয় এবং নিজের উপাধিতে লিখে মডেল/অভিনেত্রী ! তা দেখে সেই একশ্রেণীর কামুক পুরুষেরা এই ভূয়া মডেল/অভিনেত্রীদের পিছনে ঘুরে বেড়ায়। তাদের পিছনে অনেক অর্থ খরচ করে! তাতে উচ্চ বিলাসী, অরিজিনালী পতিতা নামধারী এই ভূয়া মডেল অভিনেত্রীরা আরো ক্র্যাজি হয়ে উঠে। এদের থেকে সাবধান থাকা উচিৎ নয় কি ?
আমাদের দেশের কিছু সাংবাদিক বন্ধুরা এবং কিছু টিভি চ্যানেলে যাচাই-বাছাই না করে ফলাও করে ব্রেকিং নিউজ করেন এমুক মডেল এই করেছে ! সেই করেছে !
আমি বিনয়ের সহিত বলতে চাই। আপনার নিউজ কাটতির জন্য প্রকৃত মডেল/অভিনেত্রীদেরকে কেন সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করা হচ্ছে !!! একটু অনুধাবন করবেন প্লিজ।

প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুরা আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ এই সব স্বঘোষিত মডেল নামধারী পতিতাদের অনৈতিক কর্মকান্ড নিয়ে নিউজ করার সময় একটু যাচাই-বাছাই করে মডেল/ অভিনেত্রী উপাধি দিবেন প্লিজ। নাহলে যে আমরা সত্যিকারের মডেল অভিনেত্রীদের নিয়ে বিভ্রান্তিতে পরে যাচ্ছি।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ