১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
মুলাদীতে আড়িয়াল খাঁ নদে গোসল করতে নেমে ২ তরুণী নিখোঁজ বাকেরগঞ্জে বসতঘরে মিলল মাটিচাপা অবস্থায় বৃদ্ধার মরদেহ চরফ্যাসনে মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় সাংবাদিক পরিবারের ওপর হামলা, আহত ৪ তালতলীতে বনের ২৫০ পিস লাঠি সহ গ্রেফতার ২ দুমকিতে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গাড়ি ভাঙচুর, থানায় অভিযোগ বৈশাখ উদযাপনে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের পদচারণায় মুখরিত বাদলপাড়া একতা গোরস্থানে চিরনিদ্রায় সায়িত সাংবাদিক মামুনের ‘মা’ মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় - দুলারহাটে সাংবাদিক পরিবারের ওপর হামলা আহত-৪ বরিশাল শেবাচিমের প্রিজন সেলে আসামিকে পিটিয়ে হত্যা সাংবাদিক মামুনের মায়ের মৃত্যুতে বরিশাল তরুণ সাংবাদিক ঐক্য পরিষদের শোক

স্বরূপকাঠিতে বামন বর কনের বিয়ে উৎসবের আমেজ বইছে গোটা এলাকায়

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

পিরোজপুর প্রতিনিধি : ক’দিন পূর্বেও আল আমিনকে গুরুত্ব দিতনা তেমন কেউ, বাওন বলে খেলাধুলা বা আড্ডায় ছিলোনা তার কোন বন্ধুবান্ধব, তাকে ঘিরে ছিলোনা কারো কোন আগ্রহ। সেই আল আমিনকে নিয়ে এখন আলোচনা হচ্ছে তার পাড়ার প্রতিটি ঘরে। এই আলোচনা অল্প সময়ের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ে গোটা উপজেলায়। শুধুই কি মানুষের মুখে মুখে একপর্যায়ে আল আমিন কান্ড ভাইরাল হয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। সবার মুখে একই কথা আল আমিন বিয়ে করেছেন তাও আবার তার মত বাওন পাত্রীকে। বলছি পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার সদর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের উত্তর শর্ষিনা গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে মো. আল আমিনের (২২) সাথে একই উপজেলার সোহাগদল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. শাহজাহানের কন্যা শাম্মি আক্তারের (২০) বিবাহের কথা। বৃহস্পতিবার দুই পরিবারের সম্মতিতেই বিবাহ অনুষ্ঠান অত্যান্ত ঝাকজমক পুর্ন অবস্থায় সম্পন্ন হয়। বর আল আমিন লম্বায় ৪৪ ইঞ্চি এবং কনে শাম্মি লম্বায় ৩৩ ইঞ্চি। চার ভাই ও দুই বোনের মধ্যে আল আমিন তৃতীয় এবং দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে শাম্মি সবার বড়। শাম্মি উপজেলার কলেজিয়েট একাডেমিতে ৭ম শ্রেনী পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন তার নানা শামসুল হক একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। কনের বাড়ীতে আত্মীয় স্বজনসহ এলাকার দেড় শতাধিক গন্যমান্য লোকদের দাওয়াত করে কনেপক্ষ। কিন্তু ছেলেকে এক নজর দেখার জন্য কনের বাড়িতে ওই এলাকার বহু লোক ভিড় জমায়। তাদের বিয়েতে এক লাখ টাকা দেন মোহরানা ধার্য করা হয়েছে। উভয় পরিবারের লোকজনসহ পাড়া প্রতিবেশি সকলেই উৎফুল্ল ভাবে কনের বাড়ী থেকে বর-কনেকে বিদায় জানান। রাতে বৌ নিয়ে আল আমিন বাড়ী ফিরলে এলাকার শতশত উৎসুক লোকজন বর-কনেকে একনজর দেখতে ওই বাড়ীতে ভিড় জমান। নবদম্পতিকে আশির্বাদ জানানোর পাশাপাশি তাদের সাথে ছবি তুলে ফেসবুকে পোষ্ট করছেন অনেকেই। আল আমিন – শাম্মির এ বিয়েকে ঘিরে উভয় পরিবারের মাঝে আনন্দের ফোয়ারা বইছে।
সদর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য দেব কুমার সমদ্দার জানান, কোন প্রকার নিমন্ত্রন না করলেও খবর পেয়ে এলাকার শত শত মানুষ স্বতঃস্ফুর্ত ভাবে বর-কনেকে বরন করেছেন। উপজেলার বাইরের এলাকা থেকেও বিভিন্নজন তার কাছে ফোন করে এই বিবাহের সংবাদ জানতে চাচ্ছেন। তাদের এই বিয়েকে ঘিরে পুরো এলাকায় এখন একপ্রকার উৎসবের আমেজ বইছে। ভবিষ্যতে দাম্পত্য জীবন যেন সুখে ও শান্তিতে কাটাতে পারেন এজন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন নব এই দম্পতি।

সর্বশেষ