১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

হিজলায় বিষের বোতল নিয়ে প্রেমিকার বাড়িতে তরুণীর অনশন

হিজলা প্রতিনিধি :: বরিশালের হিজলা উপজেলায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার বিষের বোতল নিয়ে দুদিন পর্যন্ত অনশন পালন করছেন।

এ ঘটনায় সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার গুয়াবাড়িয়া ইউনিয়নের পত্তনীভাঙ্গা গ্রামের খলিল ঘরামীর মেয়ে নাজমা বেগম বিয়ের দাবিতে পার্শ্ববর্তী ঘোষেরচর গ্রামের খোকন বেপারীর ছেলে নবীন বেপারীর ঘরে উঠে। এ সময় নবীন বেপারীকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি।

ব্যাপারে নাজমার সাথে আলাপকালে তিনি জানান, র্দীঘ ৪ বছর যাবৎ নবীনের সাথে প্রেমের সর্ম্পক চলছে। আমাদের প্রেমের সর্ম্পক উভয় পরিবার জানতো। নবীন পারিবারিক ভাবে বিয়ের প্রস্তাব দিলে নবীনের মা আমার পরিবারের কাছে যৌতুক দাবি করলে তা আমার পরিবার প্রত্যাখান করে। গত ৩১ জুলাই বরিবার আমি জানতে পারি নবীনের মা নবীনকে বিয়ের জন্য মুলাদীর খেজুরতলা গ্রামের এক মেয়ের সাথে আগামী বুধবার বিয়ের দিন ধার্য করেছে। এ সংবাদ পেয়ে আমি বিয়ের দাবিতে নবীনের ঘরে উঠেছি। আমাকে যদি নবীনের সাথে তার পরিবার বিয়ে না দেয় আমি এই ঘরের মধ্যে বিষপান করে মারা যাব।

এ বিষয়ে নবীনের জাহানারা বেগম জানায় ছেলে ও মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক আমরা জানি। কিন্তু মেয়ের পরিবাবের সাথে বনিবনা না হওয়ায় আমি আমার ছেলেকে অন্যত্র বিয়ে ঠিক করেছি। আমি এই মেয়েকে আমার ছেলের বউ বানাতে চাইনা।

এ বিষয়ে নাজমার পিতা খলিল ঘরামী জানান, আমার মেয়ে নবীনকে ভালবাসতো, তাই আমরা মেয়ের দিকে তাকিয়ে নবীনের পরিবারকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে তারা যৌতুক দাবি করে। তখন আমি তাদের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেই। মেয়ে যেহেতু আমাদের মানসম্মান ক্ষুন্ন করে চলে গেছে, তাই আমি ওই মেয়ের পরিচয় দিবো না। এ ঘটনা সর্ম্পকে স্থানীয় ইউপি সদস্যে ফয়সাল ও দুলাল বেপারী জানায় ঘটনার সংবাদ পেয়ে ঘটনা স্থানে গিয়ে উভয় পরিবারকে ডেকে বিয়ে পরানো জন্য সমঝোতার চেষ্টা করে ব্যথ হই।

এ বিষয়ে হিজলা থানা ওসি (তদন্ত) তারিক হাসান রাসেল জানান, তিনি কোনো অভিযোগ পাননি। যদি মেয়ে থানায় অভিযোগ করে তদন্তে সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ