৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

হিজলা ও মেহেন্দীগঞ্জে নতুন ফেরি স্থাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক—

চারদিকে মেঘনা ও তার শাখা নদীবেষ্টিত হওয়ায় বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলাটি মূল ভূখণ্ড থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন একটি জনপদে পরিণত হয়েছে। বরিশালের এই একটি উপজেলায়ই সড়কপথে যাতায়াতের কোনো সরাসরি উপায় নেই। নৌপথই একমাত্র ভরসা। মেঘনায় একটি ফেরি স্থাপনের মাধ্যমে সড়কপথে মেহেন্দীগঞ্জে যাতায়াতে কিছুটা আশার আলো দেখা দিয়েছে। এই ফেরিটি ছিল মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলাবাসীর কাছে স্বপ্নের মতো।

পুরাতন হিজলা ও মেহেন্দীগঞ্জের দাদপুর পয়েন্টে ফেরি স্থাপন হওয়ায় এখন রাজধানীসহ দেশের যেকোনো স্থান থেকে সড়কপথের যাতায়াত করা যাবে মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলায়। সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) এ ফেরি সার্ভিস সোমবার রাতে উদ্বোধন করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য পংকজ নাথ।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ফেরিটি স্থাপনের ফলে পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে উপকৃত হবেন ব্যবসায়ীরা। এ ছাড়া ফেরিটি স্থাপনের মাধ্যমে এ সড়কটি উন্নয়নের দিকে আরেক ধাপ এগিয়ে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সওজ ফেরি বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশিকুল ইসলাম জানান, পুরাতন হিজলা ও দাদপুর পয়েন্টে চলাচলের জন্য দুটি ফেরি দেওয়া হয়েছে। সোমবার রাতে স্থানীয় সংসদ সদস্য পংকজ নাথ ফেরিটি উদ্বোধন করেন। নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, একপ্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে পৌঁছতে ফেরিতে সময় লাগবে ৫০ মিনিট থেকে সর্বোচ্চ এক ঘণ্টা। একেকটি ফেরিতে ৯টি ভারী যানবাহন (যাত্রীবাহী বাস ও পণ্যবাহী ট্রাক) পার করা যাবে। আপাতত নির্ধারিত সময় মেনে ফেরি চলাচল শুরু হবে।

মেহেন্দীগঞ্জের পাতারহাট বন্দরের ব্যবসায়ী মো. অমিত সুর আপন জানান, জেলা শহর বরিশালের সঙ্গে নদীবেষ্টিত মেহেন্দীগঞ্জ, মুলাদী ও হিজলা উপজেলা ছিল সড়ক যোগাযোগ থেকে বিচ্ছিন্ন। প্রায় ১৫ বছর আগে আড়িয়াল খাঁ নদের মীরগঞ্জ পয়েন্টে ফেরি স্থাপিত হওয়ায় মুলাদী ও হিজলার সঙ্গে জেলা শহরের সড়ক যোগাযোগ স্থাপন হয়। বরিশাল নগর থেকে হিজলা পর্যন্ত বাস সার্ভিসও চালু হয়েছে। বঞ্চিত ছিল শুধু মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলা। মেঘনা নদীতে ফেরি সার্ভিস চালু হওয়ায় এখন হিজলা থেকে মেহেন্দীগঞ্জ পর্যন্ত সড়ক পরিবহন যাতায়াতের দ্বার উন্মোচিত হলো।

মেহেন্দীগঞ্জের পাতারহাট বন্দর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি সম্পাদক সরোয়ার আলম আজাদ বলেন, দক্ষিণাঞ্চলের অন্যতম বৃহৎ ব্যাবসায়িক বন্দর হচ্ছে পাতারহাট। এখানকার ব্যবসায়ীরা নৌপথে পণ্য আনা-নেওয়া করতেন। হিজলা-দাদপুর পয়েন্টে ফেরি সার্ভিস চালু হওয়ায় পাতারহাট বন্দরের ব্যবসায়ীরা এখন দেশের যেকোনো এলাকা থেকে যানবাহনে পণ্য আনা-নেওয়া করতে পারবেন।

সংসদ সদস্য পংকজ নাথ বলেন, মেহেন্দীগঞ্জের সঙ্গে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপনে হিজলা-দাদপুর পয়েন্টে একটি সেতু স্থাপনের জন্য ডিও লেটার মন্ত্রণালয়ে দিয়েছেন। এর আগে তিনি ফেরি চলাচলের ব্যবস্থা করেছেন। তা ছাড়া বর্তমান সড়কটি প্রশস্ত করার জন্যও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ