১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

৭কিলোমিটার রাস্তায় শতাধিক গর্ত ! এ যেন মৃত্যূকুপ

মুহাম্মাদ আবু মুসা:   সড়কে পাকা কার্পেটিং উঠে গিয়ে অসংখ্য স্থানে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে সড়কটির উপর দিয়ে সব ধরনের যানবাহন চলাচলে প্রায় অযোগ্য হয়ে পড়েছে। যে কারনে জনসাধারণের পোয়াতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। এই সড়কটি দ্রুত পুনঃ নির্মাণ বা মেরামত করা না হলে জনসাধারণ অনেকটা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসি। জানা গেছে, গাবতলীর তাতুঁড়া-জামিরবাড়িয়া খুপি সড়কটির সাথে অন্যান্য সড়কের অত্যান্ত সর্ম্পক রয়েছে। এই সড়কে ডাকুমারা হাট, নাড়–য়ামালা হাটসহ অন্যান্য গরুর হাট ও বন্দরের যোগাযোগ রয়েছে। এ ছাড়া ব্যবসায়ী কেন্দ্রস্থল হিসেবে গড়ে উঠেছে এই সড়কের বেশ কয়েকটি বন্দরে। এ গুলো থেকে প্রতি বছর সরকার লাখ লাখ টাকা রাজস্ব আয় করে থাকে। বেশ কয়েকটি সরকারী বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বীমা, এনজিওসহ অনেক অফিসও রয়েছে। এই সড়কটির উপর দিয়ে প্রতিদিনই বহু মানুষ যানবাহন নিয়ে চলাচল করে। নানা ধরনের যানবাহন ও পায়ে হেঁটে যাতায়াত করে থাকে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রী, অফিসগামীসহ হাজারো মানুষ। প্রায় ৭কিলোমিটার গাবতলীর তাতুঁড়া-জামিরবাড়িয়া খুপি সড়ক রয়েছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের (এলজিইডি) আওতায়। এই সড়কে কোন কাজ না করায় সম্পূর্ণ সড়কটির বেহাল অবস্থা রয়েছে। সড়কটির পাকা কার্পেটিং উঠে গিয়ে অসংখ্যস্থানে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় দেখে মনে হবে এটি কোন সড়ক নয়, মাছ চাষ করা ডোবা অথবা পতিত পড়া সড়ক। এ কারনে প্রতিদিন ছোট খাট দুর্ঘটনা লেগেই আছে। আবার সড়কে সৃষ্টি হওয়া গর্তে ময়লা পানি জমে থাকায় যানবাহনের চাকায় পানি ছিটকে মানুষের শরীরে লেগে কাপড় চোপড় নষ্ট হওয়ায় ঝগড়া বিবাদও সৃষ্টি হচ্ছে। এ ছাড়া আরো নানা সমস্যা হওয়ার কারনে জনসাধারণের পোয়াতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। তাই দ্রুত সড়কটি নির্মাণের ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসি ও ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন মহল। এ বিষয়ে ওই সড়কের তাতুঁড়া গ্রামের আব্দুল মান্নান, আটাপাড়া গ্রামের ডাঃ শাহাদত হোসেন, ছয়ঘড়িয়া গ্রামের রাজা মন্ডল, জামিরবাড়িয়া গ্রামের মজিবুর রহমান আলতাব, বাকু মন্ডল, আব্দুস সালাম, ওয়াসিম, তন্ময় অধিকারী, খুপি গ্রামের আব্দুর রশিদ, ফুলমিয়া, জিতু, আনোয়ার এর সাথে কথা বললে তাঁরা জানান, সড়কটির বেহাল অবস্থা হওয়ায় ছাত্র-ছাত্রী, ব্যবসায়ীসহ সর্বশ্রেনীর মানুষ অতি কষ্ট করে যাতায়াত বা চলাচল করছে। ফলে সড়কটির দ্রুত পুনঃনির্মাণ বা মেরামত করার জন্য সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন জানান। স্থানীয় সোনারায় ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক মফিদুল ইসলাম, প্যানেল চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম ও ইউপি মেম্বার আলেক উদ্দিন কালু জানান, এই সড়কটি দ্রুত পুনঃনির্মাণ বা মেরামত করা না হলে হাজারো মানুষ অনেকটা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তাঁরা। এ ব্যাপারে স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের (এলজিইডি) গাবতলী উপজেলা প্রকৌশলী রিপন কুমার সাহা জানান, তাতুঁড়া-জামিরবাড়িয়া খুপি ৬/৭ কিলোমিটার সড়কে কাজ আগামী ডিসেম্বরে হতে পারে। এ ছাড়া এই কাজ গুলো আমাদের চলমান প্রক্রিয়া রয়েছে। বগুড়া স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের (এলজিইডি) নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মোর্শেদ এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, যে সড়কই খারাপ বা বেহাল অবস্থা হবে সেই সড়ক পুনঃনির্মাণ বা মেরামত করা আমাদের চলমান প্রক্রিয়া। তিনি (গোলাম মোর্শেদ) আরো বলেন, এ বিষয়ে গাবতলী উপজেলা প্রকৌশলী’র সাথে কথা বলে যাবতীয় তথ্য নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে ইনশা আল্লাহ।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ