২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ওপেন হাউজ ডে’তে উত্থাপিত বিষয়গুলো অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখে থাকি : বিএমপি কমিশনার

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম-বার বলেছেন- এদেশে সেবা প্রদানকারী সরকারি ও বেসরকারি নানান ধরনের সংস্থা রয়েছে। একটু অনুভব করলেই দেখবেন, অত্যন্ত সংবেদনশীল ও স্পর্শকাতর কার্যপরিধির পেশা হওয়া সত্বেও স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকল্পে কতটা সৎ সাহস নিয়ে কতটা চ্যালেঞ্জ নিয়ে আপনাদের মুখোমুখি দাঁড়াই।

আজ বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকাল ১১ টায় এয়ারপোর্ট থানার নবনির্মিত ভবন চত্বরে আয়োজিত ওপেন হাউজ ডে’তে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে যথারীতি বিগত ওপেন হাউজ ডে’তে আগত ভুক্তভোগী জনসাধারণের উত্থাপিত বিভিন্ন ধরনের সমস্যা সমাধানকল্পে এয়ারপোর্ট থানা তথা থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট অফিসারগনকে জনগণের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে সমস্যা সমাধান কল্পে কি কি ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে, সমস্যার কতটুকু সমাধান করেছে সেই সংক্রান্তে পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে একটি জবাবদিহিতামূলক বিবরণী (মিউনিট) আগত সর্বসাধারণের সামনে পাঠ করে শোনানো হয়।

এ সময় পুলিশ কমিশনার বলেন, ওপেন হাউজ ডে হচ্ছে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকল্পে জনগণের সাথে পুলিশের যোগাযোগ স্থাপনের একটি সেতুবন্ধন। তাই ওপেন হাউজ ডে’তে উত্থাপিত বিষয়গুলো আমরা অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখে থাকি। এরমধ্যে আমরা তিনটি বিষয়ের উপর সর্বাধিক গুরুত্ব আরোপ করে থাকি।

১) ভুক্তভোগীদের উত্থাপিত সমস্যা শুনে তা সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ।
২) সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ, সামাজিক নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের কাছ থেকে এলাকা ভিত্তিক, সামাজিক নানান ধরনের অসংগতি ও সমস্যা শুনে সেগুলোর সমাধান কল্পে ব্যবস্থা গ্রহণ।
৩) পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে যে কোনো অনিয়ম ও শৃঙ্খলা পরিপন্থী অভিযোগ থাকলে তা অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ।

অতঃপর উপস্থিত ভুক্তভোগী জনসাধারণ পুলিশ কমিশনারের নিকট নানান বিষয়ে তাদের সমস্যা তুলে ধরেন। পুলিশ কমিশনার উত্থাপিত সমস্যার সমাধান কল্পে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তাদের বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা প্রদান করেন। যা বাস্তবায়ন পরবর্তী মাসে অনুষ্ঠিতব্য ওপেন হাউজ ডে’তে আগত সর্বসাধারণের সামনে পর্যালোচনা করা হবে।

এসময় উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) মোঃ মনজুর রহমান পিপিএম-বার ভুক্তভোগীদের উত্থাপিত বিভিন্ন সমস্যা সংক্রান্তে আলোকপাত করার পাশাপাশি অপরাধ নিবারণের জন্য সামাজিকভাবে সবাইকে এগিয়ে এসে সামাজিক দায়িত্ব পালন করার পাশাপাশি পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য আহবান জানান।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন- সহকারী পুলিশ কমিশনার (এয়ারপোর্ট থানা) মাসুদ রানা, এয়ারপোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ কমলেশ চন্দ্র হালদার, ইন্সপেক্টর ইনভেস্টিগেশন শাহ মোঃ ফয়সাল, ইন্সপেক্টর অপারেশনসহ থানার সকল অফিসার ও ফোর্সবৃন্দ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ, কমিউনিটি পুলিশিং এর সদস্যবৃন্দ সহ থানা এলাকার সকল শ্রেণী পেশার লোকজন।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার গণমাধ্যম কর্মীবৃন্দ।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ