২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বরিশালে মোবাইল ফোনে প্রেম, অতঃপর গভীর রাতে ডেকে নিয়ে. . .

উজিরপুর প্রতিনিধি ঃ উজিরপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে গভীর রাতে ফোন করে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভূক্তভোগী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গড়িয়া গ্রামের জামাল ঘরামীর ছেলে ২ সন্তানের জনক জসিম ঘরামী(৩৫) মোবাইল ফোনের মাধ্যমে গড়িয়াগাভা গ্রামের ওই ছাত্রীর সাথে ৪মাস ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই সুযোগ নিয়ে লম্পট জসিম ঘরামী ২ আগষ্ট সোমবার রাত ২টার দিকে প্রেমিকাকে বিয়ের কথা বলে ফোন করে ঘর থেকে বের হতে বলে। এরপর মেয়েটি প্রেমিকের হাত ধরে চলে যায়। সুচতুর জসিম তার নিজ বাড়িতে না নিয়ে ওই গ্রামে তার এক বন্ধু ইসলাম রাড়ীর বাড়িতে নিয়ে যায় এবং বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। পরের দিন সকাল বেলায় ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ছাত্রীকে ফেলে লম্পট জসিম বন্ধু ইসলামকে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা বিষয়টি থানা পুলিশ ও সাংবাদিকদের অবহিত করে। এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী ছাত্রী সাংবাদিকদের জানান, আমার সাথে মোবাইল ফোনে জসিমের প্রেমের সম্পর্ক হয়। এরই সুবাদে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমাকে গভীর রাতে তার বাড়িতে নেয়ার কথা বলে অচেনা এক বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে আমাকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। সকাল বেলা আমাকে ফেলে পালিয়ে যায়। আশপাশের লোকজনের কাছে জানতে পারি লম্পট জসিম বিবাহিত এবং তার ১ ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে। আমাকে সর্বশান্ত করেছে ওই নারীলোভী জসিম। আমি এর বিচার চাই। কান্না করে আরো বলে এখন আমি কোথায় যাব, বাবা-মা হয়ত আমাকে আর ঘরে তুলবে না। আশ্রয়দাতা ইসলাম রাড়ীর স্ত্রী কুলসুম বেগম জানান, রাতে তারা এসে স্বামী-স্ত্রীর কথা বলে আমিাদের ঘটে আশ্রয় নেয়। এরপর আমি ও আমার স্বামী একই বিছানায় ছিলাম। তারা দু’জন অন্যরুমে ছিল। এর বেশি কিছু আমার জানা নেই। উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আর্শাদ জানান, বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। কোন অপরাধীকে ছাড় দেয়া হবে না।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ