১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
বরিশালে বাস-মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ কিশোর নিহত পটুয়াখালীতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানে ঢুকে ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামের ২৯তম মৃত্যুবার্ষিকীতে এসটিএস হাসপাতালের ২ দিন ব্যাপী ফ্রী মেডিকেল ক্যাম্প করোনায় আরও ৩৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১ হাজার ৯০৭ ভোলায় মহানবী (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তি, পূজা পরিষদের সভাপতি আটক ইন্দুরকানীতে নয় বছরেও সেতুতে নেই ল্যাম্পপোষ্ট, পথচারীদের ভোগান্তি পটুয়াখালীর চার সেতুতে লাইট পোস্টে আলো নেই মেহেন্দিগঞ্জে নৌ-পুলিশের অভিযানে কোটি টাকার অবৈধ কারেন্ট জাল উদ্ধার অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামের কবরে চরফ্যাসন প্রেসক্লাবের শ্রদ্ধাঞ্জলি চরফ্যাশনে ইউনিয়ন সংরক্ষণ কমিটি গঠনে পরামর্শ সভা

বাকেরগঞ্জের চরামদ্দিতে ১৪দিন যাবৎ মাদ্রাসার ছাত্র নিখোঁজ

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি।। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার চরামদ্দি মিয়াবাড়ি বাজার মুগাখান নুরানি ও হাফেজি মাদ্রাসার মোঃ সুলাইমান হোসেন রুম্মান (১১) নামের এক ছাত্র ১৪ দিন ধরে নিখোঁজ। এ ঘটনায় মাদ্রাসার হেফজ শাথার প্রধান শিক্ষক মোঃ হেদায়েতুল্লাহ বাকেরগঞ্জ থানায় গত ২৩শে আগস্ট সোমবার রাতে একটি সাধারন ডায়েরি (জিডি)করেন। এর পর দিন ছাত্রের মা মেরী বেগম বাকেরগঞ্জ থানায় মাদ্রাসাটির হেফজ শাখার শিক্ষক মোঃ হেদায়েতুল্লার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন।পরিবার ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রুম্মান চরামদ্দি ইউনিয়নের মুগাখান নুরানি হাফেজি মাদ্রাসায় আবাসিক ছাত্র হিসেবে পড়ালেখা করত। নিখোঁজ হওয়ার দিন ২১শে আগস্ট শনিবার সকাল ১১টার দিকে কাউকে কিছু না বলে  মাদ্রাসা থেকে বের হয়ে যায়। এরপর দিন  বিকেলে ওই ছাত্রের মা মেরী বেগম মাদ্রাসা শিক্ষকের কাছে ছেলের খোজ যানতে চাইলে ওই শিক্ষক তার ছেলে মাদ্রাসায় নেই বলে জানান।এর পর থেকেই রুম্মানের পরিবার সব আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে খোঁজ নিয়েও তার সন্ধান পায়নি। পরে মাদ্রাসা শিক্ষক বাকেরগঞ্জ থানায় জিডি ও ওই  ছাত্রের মা একই থানায় অভিযোগ করেন। নিখোজ ছাত্র মোঃ সুলাইমান হোসেন রুম্মান বরিশাল সদর উপজেলার ৮নং চাঁদপুরা ইউনিয়নের চানপুরা গ্রাম (তালুকদারহাট)এলাকার মৃত মোঃ আলতাফ হোসেন হাওলাদারের পুত্র। রুম্মানের ভাই রুবেল প্রতিবেদককে বলেন, বিভিন্ন জায়গায় খুঁজেও তার কোন সন্ধান মিলছে না। পুলিশ জানিয়েছে, তারা রুম্মানকে উদ্ধারের চেষ্টা করছে।

স্থানীয় লোকজন বলেন, এই ছেলে এর আগেও কয়েকবার পালিয়ে গেছে।

মাদ্রাসাটির হেফজ শাখার শিক্ষক মো. হেদায়েতুল্লাহ বলেন, ওই ছাত্র ২১ আগস্ট মাদ্রাসা থেকে খাবার কেনার জন্য সামনের দোকানে যায় ওখান থেকে সে আর মাদ্রাসায় আসেনি। আমরা মনে করছি সে বাড়িতে গেছে তাই ওই দিন আর খোজাখুজি হয়নি। পরে যখন জানতে পারি সে বাড়ি যায়নি তখন থেকে আমরা তার সন্ধানে ভিবিন্নস্থানে খোজাখুজি করতেছি। ওই শিক্ষার্থী এর আগেও কয়েকবার এমন করেছে।

এ বিষয়ে বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলাউদ্দিন মিলন বলেন, এ সংক্রান্ত একটি জিডি হয়েছে। দেশের সব থানায় বার্তা পাঠানো হয়েছে। ওই ছাত্রকে উদ্ধারের জন্য আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি, একই সঙ্গে তার পরিবারের লোকজনও বিভিন্ন এলাকায় খোঁজখবর নিচ্ছেন।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ