৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
রাজাপুরের তারাবুনিয়ায় যুবককে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ! গলাচিপায় মহান বিজয় দিবস ও শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত ব্যাংক গুজবে কান দেবেন না: প্রধানমন্ত্রী হারিয়ে যাওয়া ১০ টি স্মার্ট ফোন উদ্ধার করলো ভোলা পুলিশ  বরিশাল নগরীতে জেনারেল ডায়াগনস্টিক এবং পাঁচটি ফার্মেসিকে জরিমানা ! গলাচিপায় বকুলবাড়িয়া ইউনিয়ন আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত গলাচিপায় মিথ্যা রাজাকার পুত্র বলে প্রচার করায় কোটি টাকার মানহানী মামলা অসংখ্য মানুষের চোখের জলে বিদায় নিলেন ডায়নামিক জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার। ২৮তম ট্রাব অ্যাওয়ার্ড ২০২২ মনোনয়ন পেলেন যারা মহিলা নেত্রী উপরে হামলার প্রতিবাদে দশমিনায় মানববন্ধন

আউলিয়াপুর ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নে আবারও চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে চান হুমায়ুন কবির

মির্জা আহসান হাবিব ঃ দ্বিতীয় ধাপে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২০২১ কে সামনে রেখে পটুয়াখালী সদর উপজেলার ১১নং আউলিয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ইউনিয়রে বারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ হুমায়ুন কবির।পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সোবহান মৃধা, মাতা-হাজেরা বিবি ৪ নং ওয়ার্ড এর বাসিন্দা। মেঝ চাচা বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ আতাহার উদ্দীন মৃধা আউলিয়াপুর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি ও স্বাধীন বাংলাদেশের আউলিয়াপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের তিন বার সভাপতি ছিলেন। পরিবারের চাচা বীর মুক্তিযোদ্ধা খলিলুর রহমান,চাচাত ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মৃধা , চাচাত ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউনুস মৃধা মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। মোট কথা এ্যাডঃ মোঃ হুমায়ুন কবির পরিপূর্ণ ভাবে আওয়ামী লীগের এবং মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের গর্বিত সন্তান।
মুক্তিযুদ্ব চলাকালীন সময়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ আতাহার উদ্দীন মৃধার বসত ঘরে পাক হানাদার বাহিনী আগুন লাগিয়ে দেয় এতে তাদের পরিবারের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়।
ছাত্র জীবনেই ছাত্র অবস্থায় ১৯৯৭ সালে বিপুল ভোটের ব্যাবধানে আউলিয়াপুর ইউনিয়নের চেয়াম্যান নির্বাচিত হন। ২০০৩ সালে বিএনপি জামাতের জোট সরকারের আমলে আলতাফ হোসেন চৌধুরী স্বরাষ্ট মন্ত্রী থাকালীন সময়ে যেখানে কেউ নির্বাচন করার সাহস পায়নি তখন ইউপি নির্বাচনে বিএনপি’র প্রার্থী জাহাঙ্গীর সিকদার কে হারিয়ে বিপুল ভোটে জয় লাভ করেন। ২০০৩ সালে বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর ১২/১৩ টি মামলায় জড়িয়ে জেল হাজতে প্রেরন করেন। সেই সময়ে বর্তমান জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্বা আলহাজ্ব কাজী আলমগীরকে ও একটি রাজনৈতিক মামলায় কারাবরন করেন। সেই কারাবরনে দুজন জেল খানায় একই রুমে ছিলেন।
২০১৬ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নৌকা প্রতিক পেয়ে বিপুল ভোটের ব্যাবধানে তৃতীয় বারের মত চেয়ারম্যান নির্বাচিতহন। তার এই দির্ঘ ১৯ বৎসরের চেয়ারম্যান কার্যকালীমন সময় তিন বার স্বর্নপদক সহ একদিক বার জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন এবং জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন।
আউলিয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আউলিয়াপুরকে ডিজিটাল ভাবে গড়ে প্রতিটা মানুষকে স্বপ্নের ইউনিয়ান উপহার দেওয়ার একমাত্র লক্ষ্য নিয়ে অবহেলিত ও লাঞ্চিত মানুষের পাশে দাড়ানোর লক্ষে এবং অসহায়,দুঃস্থ মানুষের সুখ দু:খের অংশিদার হয়ে মানোবতার বাতি বাতিঘর আধুনিক আউলিয়াপুর গড়ার প্রত্যয় নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান আ্যডভোকেট মোঃ হুমায়ূন কবির আউলিয়াপুর ইউনিয়নের আবারও দলীয় মনোনয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান হওয়ার আশা পোষন করেন।
ছাত্র জীবন থেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন এ্যাডঃ মোঃ হুমায়ুন কবির।সাবেক ছাত্র নেতা এবং পটুয়াখালী জেলা কৃষক লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদকসহ বর্তমানে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং আউলিয়াপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন সুনামের সাথে।
এ বিষয়ে তিনি বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের অগ্রযাত্রা মানুষের দোরগোড়ায় পৌছে দেওয়ার জন্য আয়ামীলীগের কর্মী ও চেয়ারম্যান হিসাবে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন ।
ছাত্রজীবন থেকেই ছাত্রলীগের সাথে জড়িত ছিলেন মোঃ হুমায়ুন কবির অতীতে ছাত্রজীবনে যেমন ছাত্রলীগ করতেন তেমনি বর্তামান জীবনেও স্বাধীনতার মহানায়ক,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশকে বুকে ধারন করে জাতির পিতার একজন কর্মী হিসেবে সোনার বাংলা বিনির্মানের প্রত্যয় নিয়ে কাজ করেছেন।তাই তার আশা জননেত্রী শেখ হাসিনা ত্যাগী নেতা কর্মীদের যেভাবে মূল্যায়ন করতেছেন ও করেন, সে হিসাবে আওয়ামী পরিবারের পরিক্ষিত কর্মী হিসেবে এবারের আউলিয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচেন তিনি দলীয় মনোনয়ন পাবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।আর আবারও দলীয় মনোনয়ন পেলে নৌকা মার্কা নিয়ে নির্বাচন করলে বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারবেন বলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ