২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
সেলুনে চুল কাটার নোটিশ দিয়ে বিপাকে জাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান!  চরফ্যাশনে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত চরফ্যাশনে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত দাফনের দুই মাস পর কবর থেকে কৃষকের লাশ উদ্ধার পিরোজপুরে দাফনের ২ মাস পর কবর থেকে কৃষকের লাশ উত্তোলন উজিরপুরে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নলছিটিতে কলেজছাত্র রুম্মান হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন আগুনমুখা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলন ড্রেজারের পাঁচ শ্রমিককে তিন মাসের জেল, একজনকে জরিমানা উজিরপুরে দুই মাদক ব্যাবসায়ীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ ২২দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে ইলিশ শূণ্যতায় হতাশ জেলেরা

এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ববিতেও

বরিশাল বাণী: প্রথমবারের মতো এবার দেশের ৭টি বিভাগীয় শহরের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তারমধ্যে বরিশাল বিভাগের ভর্তিচ্ছুদের ভর্তি পরীক্ষা বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) স্মাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ক ইউনিটে ৩ হাজার ৪২৫ জন, খ ইউনিটে ১ হাজার ৭৪১ জন, গ ইউনিটে ৪৭০ জন, ঘ ইউনিটে ৩ হাজার ১৩ জন এবং চ ইউনিটে ৪৮০ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন।

এ বিষয়ে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ছাদেকুল আরেফিন বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আমাদের কাছে সহযোগিতা চাওয়া হয়েছিল। আমরা সবধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি। ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় ব্যবস্থাপনাগত সহযোগিতা করবে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়। সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা পরিচালনার জন্য সবধরনের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ঢাবির এই পরীক্ষা সম্পন্ন করতে সহযোগিতা করবে।
ক ইউনিটের পরীক্ষা ১ অক্টোবর, খ ইউনিট ২ অক্টোবর, গ ইউনিট ২২ অক্টোবর এবং ঘ ইউনিট ২৩ অক্টোবর। চ ইউনিটের পরীক্ষা এর মধ্যেই ৯ অক্টোবর হবে। ক, খ, গ ও ঘ ইউনিটে বহুনির্বাচনী ও লিখিত পরীক্ষা হবে। বহুনির্বাচনী পরীক্ষা হবে ৬০ নম্বরে ও লিখিত পরীক্ষা হবে ৪০ নম্বরের। শুধুমাত্র চ ইউনিটে ৪০ নম্বরের সাধারণ জ্ঞান ও ৬০ নম্বরের অংকন পরীক্ষা নেওয়া হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, ডিজিটাল জালিয়াতি চক্রের মূলহোতা হিসেবে যারা কাজ করতো, ভর্তি পরীক্ষাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতো তাদের আইনের আওতায় আনা হয়েছে। যারা যে কোনো ধরনের জালিয়াতির মাধ্যমে ভর্তি হয়েছিল, তাদেরও আমরা চিহ্নিত করেছি। তাদের ভর্তি বাতিল করা হয়েছে এবং তাদেরও আইনের আওতায় আনা হয়েছে। জালিয়াতি চক্রের মূল উৎপাটনে বিশ্ববিদ্যালয় জিরো টলারেন্স অবস্থানে আছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ