২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
দাফনের দুই মাস পর কবর থেকে কৃষকের লাশ উদ্ধার পিরোজপুরে দাফনের ২ মাস পর কবর থেকে কৃষকের লাশ উত্তোলন উজিরপুরে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নলছিটিতে কলেজছাত্র রুম্মান হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন আগুনমুখা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলন ড্রেজারের পাঁচ শ্রমিককে তিন মাসের জেল, একজনকে জরিমানা উজিরপুরে দুই মাদক ব্যাবসায়ীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ ২২দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে ইলিশ শূণ্যতায় হতাশ জেলেরা আজ সাংবাদিক আরিফ হোসেন’র বাবার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পূর্ব বাদলপাড়া মসজিদে সিরাতুন্নবী (সঃ) পালন নৌকার মনোনয়ন পেয়ে --- মরহুম অধ্যক্ষ মিয়া মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম স্যারের কবর যিয়ারত করলেন  আবুল হাসেম ম...

বরিশালে ভিজিডি কার্ডের প্রলোভনে গৃহবধূকে ধর্ষণ করতেন ইউপি মেম্বার

আরিফিন রিয়াদ, গৌরনদী (বরিশাল) ॥ ভিজিডি কার্ড করে দেয়ার কথা বলে চার সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে (৩৬) ধর্ষনের পর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষনের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড খাঞ্জাপুর গ্রামের।

গৌরনদী উপজেলার টরকী বন্দরস্থ একটি কার্যালয়ে রবিবার সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী ওই নারী বলেন, দেড় বছরপূর্বে খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিন মৃধার সাথে তার পরিচয় হয়। পরবর্তীতে দারিদ্রতার সুযোগে গত একবছর পূর্বে ভিজিডি কার্ড করে দেয়ার কথা বলে তাকে ইউপি সদস্যর ভুরঘাটার অফিসে ডেকে নেয়া হয়। সেখানে ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিন মৃধা তাকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে।

সংবাদ সম্মেলনে ওই নারী আরও বলেন, ধর্ষনের পর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আলাদা বাসা ভাড়া করে রাখার প্রস্তাব দেয়া হয়। পরবর্তীতে তাকে (ভুক্তভোগী) বিভিন্নস্থানে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষন করে ইউপি সদস্য গিয়াস। একপর্যায়ে বিয়ের জন্য চাঁপপ্রয়োগ করা হলে তার (ভুক্তভোগী) দিনমজুর স্বামীকে ইউপি সদস্য ডিভোর্স দিতে বলেন। পরে গিয়াস উদ্দিনের পরামর্শে কালকিনির বাদশা মিয়া নামের এক নিকাহ রেজিষ্টারের মাধ্যমে ভুক্তভোগী ওই নারী তার প্রথম স্বামীকে ডিভোর্স দেয়।

সংবাদ সম্মেলনে ওই নারী বলেন, প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচনে পূর্নরায় গিয়াস উদ্দিন ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর তার (ভুক্তভোগী) সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়। পরবর্তীতে বিষয়টি ধামাচাঁপা দিতে গত ৩০ সেপ্টেম্বর তাকে (ভুক্তভোগী) ডেকে নিয়ে ইউপি সদস্য গিয়াস ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর আদায় করে সমঝোতার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হন। একপর্যায়ে গিয়াস ও তার লোকজনে সমঝোতায় ব্যর্থ হয়ে বিভিন্ন ধরনের হুমকি প্রদান করেন।

সংবাদ সম্মেলনে ওই নারী বলেন, ইউপি সদস্য গিয়াসের প্রতারনার কারনে স্বামী-সন্তানদের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করছি, এখন গিয়াস উদ্দিনও অস্বীকার করে আমাকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। তাই ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিনের কাছে স্বামীর অধিকার ফিরে পেতে আমি প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

তবে সংবাদ সম্মেলনে ওই নারী ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিনের সাথে তার সম্পর্কের কোন প্রমান দেখাতে পারেননি।

ভুক্তভোগী ওই নারীর সকল অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিন মৃধা বলেন, সদ্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচনের দিন আমার নিকটতম পরাজিত প্রার্থী আরজ আলী সরদারের সমর্থকদের বোমা হামলায় আমার এক সমর্থক নিহত হয়েছেন। ওই ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে পরাজিত প্রার্থী আমাকে সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য নানা ষড়যন্ত্র করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ওই নারীকে দিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে অপপ্রচার চালাচ্ছে। প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা যার সঠিক তদন্ত করলে প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসবে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ