৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সংগঠণের বিভিন্ন পদের নাম ও তাদের দায়িত্ব

✒️মুহাম্মদ ইমাদুল হক ফিরদাউছ প্রিন্স

সংগঠন (Organization) একটি সামাজিক প্রক্রিয়া। যেকোন উদ্দেশ্যকে বা লক্ষ্যকে হাসিল করতে একদল মানুষ যখন তৎপর থাকে তখনই সংগঠনের সৃষ্টি হয়। আর এই সংগঠনের কাজ গুলি ব্যপকতার ভিত্তিতে একক কাজের মাধ্যমে সম্পন্ন করা সম্ভব হয় না। তাই সংগঠনের দায়িত্ব সমূহকে বিভিন্ন ধাপে বিভক্ত করা হয়। আর তখনই সৃষ্টি হয় বিভিন্ন পদের। আপনারা কয়জন কে নিয়ে কমিটি গঠন করবেন, সেটার নির্ভর করে পদ সংখ্যা। যেমন আহবায়ক কমিটি ১১ জন নিয়ে গঠিত হয়। অনান্য কমিটির পদ সংখ্যা আরও বেশী হবে। সদস্য সংখ্যার উপর নির্ভর করে কমিটি গঠন করা হয়। যেমন ২১জন, ৪১ জন, ৫১ জন, ৭১ জন ১০১ জন। আমার কিছু এনালাইসিস থেকে আমি পদ গুলি এবং পদে থাকা ব্যক্তিদের দায়িত্ব মেনশন করছি।

১) সভাপতিঃ সভাপতি সংগঠনের প্রধান। তিনি পদাধিকারবলে সকল সভায় সভাপতিত্ব করেন। সিদ্ধান্ত গ্রহনের ক্ষেত্রে তিনি ভোটদানের অধিকারি নন। তবে অচলাবস্থা নিরসনের জন্য তিনি কাস্টিং ভোট দিতে পারেন। সংগঠনের গঠনতন্ত্রের প্রতিটি ধারার যথাযথ প্রয়োগ নিশ্চিত করা তার দায়িত্ব।

২) সহ-সভাপতিঃ সহ-সভাপতি সভাপতির সকল কাজে সহায়তা করেন। সভাপতির অনুপস্থিতিতে সহ-সভাপতি সভাপতির দায়িত্ব ও ক্ষমতার অধিকারি হন। এ ছাড়াও তিনি তার উপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালন করেন।

৩) সাধারন সম্পাদকঃ সাধারন সম্পাদক সংগঠনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। তিনি সভাপতির পরামর্শক্রমে সংগঠনের সভা আহ্বান করেন। তিনি প্রয়োজনবোধে অন্যান্য কর্মকর্তার ওপর বিভিন্ন দায়িত্ব অর্পন করেন এবং তাদের কাজের মধ্যে সংযোগ ও সমন্বয় সাধন করেন। সংগঠনের দৈনন্দিন কার্যকলাপের জন্যে দায়ি থাকেন। প্রতিটি সভায় তিনি সংগঠনের কার্যাবলীর রিপোর্ট পেশ করেন।

৪) সহ-সাধারন সম্পাদকঃ তিনি সাধারন সম্পাদকের সকল কাজে সহায়তা করেন। সাধারন সম্পাদকের অনুপস্থিতিতে তিনি সাধারন সম্পাদকের সকল দায়িত্ব ও ক্ষমতার অধিকারি হন। এছাড়াও তার উপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালন করেন।

৫) সাংগঠনিক সম্পাদকঃ প্রতিষ্ঠানকে সাংগঠনিক ভাবে সুদৃঢ় করতে সচেষ্ট থাকেন। সাংগঠনিক সম্পাদক সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য সর্বদা নিয়োজিত থাকবেন। সংগঠনের শৃঙ্খলা এবং ব্যাপ্তি ঘটানোর জন্য নিবেদিত প্রাণ হিসেবে কাজ করাই তার প্রধান। সংগঠনের সভাপতির সঙ্গে আলোচনাক্রমে তিনি সংগঠনের সকল সভা আহ্বান করবেন এবং সভার কার্যবিবরণী লিপিবদ্ধ করার ব্যাবস্থা গ্রহণ করবেন । সংগঠনের স্বার্থ সংরক্ষণের দায়িত্ব ও প্রশাসনিক কার্যভার তার উপর ন্যস্ত থাকবে এবং কার্যকরী পরিষদ কর্তৃক অর্পিত অন্যান্য দায়িত্বও তাকে পালন করতে হবে । সংগঠনের নথিপত্র ও সম্পদ তাঁর তত্ত্বাবধানে থাকবে এবং এ ব্যাপারে তিনি একটি রেজিস্টার খাতা রাখবেন । সভাপতির সাক্ষর থাকবে । তিনি বছরের কার্যবিবরণী প্রস্তুত করবেন এবং তা কার্যকরী পরিষদেও অনুমোদনক্রমে, তা বার্ষিক সাধারণ সভায় পেশ করবেন ।

৬) সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকঃ সাংগঠনিক সম্পাদকের সকল কাজে সহায়তা করেন। সাংগঠনিক সম্পাদকের অনুপস্থিতিতে তিনি সাংগঠনিক সম্পাদকের সকল দায়িত্ব ও ক্ষমতার অধিকারি হন। এছাড়াও তার উপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালন করেন।

৭) প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদকঃ পদের নামেই বোঝা যাচ্ছে তার কাজ কি হবে। মূলত প্রচার করাই প্রচার সম্পাদকের কাজ। তিনি যে সংগঠন বা প্রতিষ্ঠার প্রচার সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হবেন সেই সংযুক্ত প্রতিষ্ঠান, সংঘ বা দলের যেকোনো কার্যক্রম সম্পর্কিত খবরাখবর অন্যান্য কর্মকর্তা এবং প্রয়োজনে সাধারণ মানুষের নিকট পৌছে দেয়ার জন্য তিনি মুখপাত্রের ভূমিকা পালন করেন। প্রচার কাজের জন্য তার আওতাধীণ অন্যান্য কর্মীরা থাকলে তাদেরকে পরিচালিত করাও তার কাজ। প্রচার কাজের জন্য সংযুক্ত চিঠি, নোটিশ, পোস্টার, ব্যানারসহ প্রকাশনা সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কাজ ও ডকুমেন্ট তার দ্বায়িতে থাকবে।

৮) সহ-প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদকঃ তিনি প্রচার সম্পাদকের সকল কাজে সহায়তা করেন। প্রচার সম্পাদকের অনুপস্থিতিতে তিনি প্রচার সম্পাদকের সকল দায়িত্ব ও ক্ষমতার অধিকারি হন। এছাড়াও তার উপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালন করেন।

৯) কোষাধ্যক্ষঃ সংগঠনের যাবতীয় অর্থ তার মারফত ব্যাংকে জমা থাকে। তিনি প্রতিষ্ঠানের আয়-ব্যয়ের হিসাব রক্ষা ও প্রদান করেন। বিভিন্ন বিভাগের আয়-ব্যয়ের সমন্বয় করেন।

১০) ক্রীড়া সম্পাদকঃ সংগঠনের যাবতীয় খেলাধুলা বিষয়ের প্রধান তিনি। তিনি খেলাধুলা পরিচালনা করে থাকেন। এছাড়াও আরও অনেক দায়িত্ব পালন করে থাকেন।

১১) সহ-ক্রীড়া সম্পাদকঃ তিনি ক্রীড়া সম্পাদকের সকল কাজে সহায়তা করেন। ক্রীড়া সম্পাদকের অনুপস্থিতিতে তিনি ক্রীড়া সম্পাদকের সকল দায়িত্ব ও ক্ষমতার অধিকারি হন। এছাড়াও তার উপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালন করেন।

১২) সমাজসেবা-বিষয়ক সম্পাদকঃ পদের নামেই বোঝা যাচ্ছে তার কাজ কি হবে। মূলত সমাজ সেবা করাই সমাজসেবাবিষয়ক সম্পাদকের কাজ। তিনি সমাজের উন্নয়নের জন্য কাজ করে থাকেন।

১৩) উপ-সমাজসেবা-বিষয়ক সম্পাদকঃ তিনি সমাজসেবা-বিষয়ক সম্পাদকের সকল কাজে সহায়তা করেন। সমাজসেবা-বিষয়ক সম্পাদকের অনুপস্থিতিতে তিনি সমাজসেবা-বিষয়ক সম্পাদকের সকল দায়িত্ব ও ক্ষমতার অধিকারি হন। এছাড়াও তার উপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালন করেন।

১৪) ত্রাণ ও দুর্যোগ সম্পাদকঃ পদের নামেই বলে দিচ্ছে তার কাজ কি। সমাজের দরিদ্র-অভাবী ও দুর্যোগ গ্রস্থদের সাহায্য করে থাকেন। মূলত সাহায্য সহযোগিতা করাই তার লক্ষ্য।

১৫) উপ-ত্রাণ ও দুর্যোগ সম্পাদকঃ তিনি ত্রাণ ও দুর্যোগ সম্পাদকের সকল কাজে সহায়তা করেন। ত্রাণ ও দুর্যোগ সম্পাদকের অনুপস্থিতিতে তিনি ত্রাণ ও দুর্যোগ সম্পাদকের সকল দায়িত্ব ও ক্ষমতার অধিকারি হন। এছাড়াও তার উপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালন করেন।

১৬) উন্নয়ন সম্পাদকঃ মূলত উন্নয়ন মুলক যত কাজ আছে সবেই তিনি করেন। উন্নয়ন করাই তার একমাত্র লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

১৭) উপ-উন্নয়ন সম্পাদকঃ তিনি উন্নয়ন সম্পাদকের সকল কাজে সহায়তা করেন। উন্নয়ন সম্পাদকের অনুপস্থিতিতে তিনি উন্নয়ন সম্পাদকের সকল দায়িত্ব ও ক্ষমতার অধিকারি হন। এছাড়াও তার উপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব পালন করেন।

১৮) ধর্ম বিষয়ক সম্পাদকঃ একমাত্র কাজেই হলো ধর্মের প্রতি মানুষকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। মানুষকে তার নিজের ধর্ম সম্পর্কে বোঝানো।

১৯) ছাত্রবৃত্তি সম্পাদকঃ স্কুল-মাদ্রাসায় ভালো ছাত্রকে বৃত্তি প্রদান করা। গরীব মেধাবী ছাত্রদের সাহায্য সহযোগিতা করাই মূলত এই পদের কাজ।

২০) দপ্তর সম্পাদকঃ সংগঠনের যাবতীয় জিনিসপত্র দেখাশোনা ও সংরক্ষণ করেন। এ ছাড়াও সংগঠনে অর্থ সংক্রান্ত, গবেষণা, তথ্য, প্রকাশণা ইত্যাদি বিভাগে সম্পাদক থাকতে পারেন।

২১) সদস্যমণ্ডলীঃ সংগঠনের কার্যকরী কমিটিতে একাধিক সদস্য থাকেন। তারা কার্যকরী কমিটি প্রদত্ত দায়িত্ব পালন করেন। একজন সদস্য তার কাজের জন্য কার্যকরী পরিষদের কাছে দায়ি থাকেন।

আপনারা চাইলে আরও পদ বাড়াতে পারেন এটা আপনাদের বিষয়।

লেখকঃ- সাহিত্যিক, গবেষক ও কলামিস্ট

ডেপুটি রেজিস্ট্রার (গ্রেড-৫)

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ