২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কাউখালীতে পিতা ও ভাইয়ের জমি দখলের চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক–

পিরোজপুরের কাউখালী বাসট্যান্ড রোড সংলগ্ন পিতা ও আপন ছোট ভাইয়ের জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে বোনের বিরুদ্ধে । জানা যায় ,সোমবার সকাল ১১টার দিকে বরিশালে বসবাসরত মেয়ে সোনিয়া ও তার জামাই শাহিন বরিশাল থেকে কাউখালীতে ৮/১০ জন লোক নিয়ে এসে তাদের অবর্তমানে কাউকে কিছু না জানিয়ে নিজেদের ইচ্ছামত জায়গাতে ওয়াল তুলে দেয় । এতে জমিতে করতে থাকা ভবনের কাজ বন্ধ হয়ে যায়। তাৎক্ষনিক সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান  জমির প্রকৃত মালিক মাহবুব মাস্টার। এসময় তিনি দেয়ার তোলার কাজ বন্ধ করে দিতে চাইলে তার মেয়ে ও জামাই তাকে গালিগালাজ ও জীবন নাশের হুমকি  প্রদান করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

এ ব্যাপারে জমির অন্য মালিক ফয়সাল জানান, কাউখালীর এই ১৪ শতাংশ জায়গা আমার মায়ের নামে ছিলো । মা মারা যাওয়ার পর ওয়ারিশ হিসেবে আমি ৭ শতাংশ, আমার বাবা ৩.৫ শতাংশ এবং আমার বোন সোনিয়া ৩.৫ শতাংশ জায়গা পাই। মা মারা যাওয়ার পর থেকেই আমার বোন ও দুলাভাই এই জায়গা বিক্রি করে দেয়ার জন্য বলতে থাকে । আমাদের নামে জায়গা মিউটেশন হওয়ার পর থেকে আমি এবং আমার বাবা বিভিন্ন সময়ে আমার বোনকে তার জায়গা মেপে বুঝে নেয়ার জন্য বললেও সে তার জমি বুঝে নিতে আসেনি । গত বছর আমি আমার অংশে আমার বাড়ির কাজ শুরু করার সময়ও তাকে জায়গা বুঝে নিতে আসতে বলার পরও সে আসেনি । হঠাৎ সে আজকে কাউখালীতে লোকজন নিয়ে এসে আমাদের কাউকে কিছু না জানিয়ে আমার ও আমার আব্বার অংশে দেয়াল করে দেয় । এ ব্যাপারে কাউখালী থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে । আমাদের সম্পূর্ণ জমি দিয়ে আমার বোনের জামাই শাহিনের ব্যবসায় লস হলে ওই সময়ে সে আমাদেরকে এই জমি মরগেজ দিয়ে তার নামে লোন তুলে দিতে আমাদের চাপ দেয় । আমি আমার বোনের সুখের কথা চিন্তা করে আব্বাকে রাজি করিয়ে ২০১৫ সালে তাকে বরিশাল প্রিমিয়ার ব্যাংক থেকে লোন তুলে দেই । ১ বছর পর লোন পরিশোধ করে আমাদের দলিল ফেরত দেয়ার কথা থাকলেও আজ ৭ বছর পরও সে ফেরত দেয়নি ।  বরিশাল কোতয়ালী থানায় তার নামে অভিযোগ দিলে সে থানায় দলিল ফেরত দেয়ার লিখিত অংগীকার করে । এখন ফেরত দিতে বাধ্য হচ্ছে বলে তারা অন্য একটা ঝামেলা করার জন্য এই ঘটনা ঘটিয়েছে । আমার দুলাভাই খুবই অসৎ , সে আমার বাবার নামে সই স্বাক্ষর জালিয়াতি করে ব্যাংকে একাউন্ট করে সেখানে লেনদেন করেছে । এই খবর জানতে পেরে আমরা বরিশাল কোর্টে তার বিরুদ্ধে মামলা করেছি । যা বর্তমানে চলমান রয়েছে ।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ