৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মাসব্যাপী তাঁতবস্ত্র ও হস্তশিল্প মেলায় ক্রেতা সাধারণের উপচে পড়া ভীড়

সেলিম শিকদার সিরাজগঞ্জঃ- সিরাজগঞ্জ শহরের প্রবেশদ্বার বাজার স্টেশন মুক্তির সোপান চত্বরে মাসব্যাপী আয়োজিত তাঁতবস্ত্র ও হস্তশিল্প প্রদর্শনী মেলা জমে উঠেছে। ক্রেতা সাধারণের উপচে পড়া ভীড়।
গত (২৩ অক্টোবর) রবিবার সকালে সিরাজগঞ্জ শহরের প্রবেশদ্বার বাজার স্টেশন মুক্তির সোপান চত্বরে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড, বস্র ও পাট মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজনে মাসব্যাপী তাঁতবস্ত্র ও হস্তশিল্প -প্রদর্শনী মেলা২০২২ শুভ উদ্ভোধনের পরথেকে নারী-পুরুষ ছেলে-মেয়েসহ বিভিন্ন বয়সের ক্রেতা সাধারণ ও দর্শনার্থীদের
উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেছে। জমে উঠেছে মেলা প্রাঙ্গণ।
বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড সিরাজগঞ্জ জেলা কর্তৃক মাসব্যাপী তাঁতবস্ত্র ও হস্তশিল্প প্রদর্শনী মেলার
পরিচালক মোঃ নাজিম উদ্দীন বলেন-
আবহমান বাংলার ঐতিহ্য যমুনা পাড়ের তাঁতের শাড়ী এদেশের কুটিরশিল্পের অন্যতম একটি প্রধান উপকরন হওয়া সত্বেও নানা কারনে ঐতিহ্যবাহী এই হস্তশিল্প প্রায় বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছিল।
বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার
সুযোগ্য নেত্রীত্ব সরকার গঠনের পর দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা আজ রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে বিশ্ব দরবারে।
গনতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার
নির্দেশনায় দেশের সকল উন্নয়নের পাশাপাশি তাঁত কুঞ্জ সিরাজগঞ্জের এই তাঁতবস্র শিল্প রক্ষা করন এবং হারানো ঐতিহ্য পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।
বহু প্রাচীন কাল থেকেই যমুনা অববাহিকার বির্স্তীন প্রান্তর জুড়ে বিকশিত যমুনার তীর ঘেষে বিস্তীর্ণ জনপদে তৎকালীন সময়ে সিরাজগঞ্জ, বেলকুচি, এনায়েতপুর, চৌহালী,শাহজাদপুরসহ প্রায় ৫০ কিঃমিঃ বির্স্তীন জনপদে হাজার হাজার তাঁতবস্র শিল্প কারখানা গোড়ে উঠেছে।
জেলায় কুটির শিল্পের মধ্যে তাঁতবস্র শিল্প অতি প্রাচীনতম। বহুপূর্বকাল থেকেই সমগ্র ভারতবর্ষে সিরাজগঞ্জের তাঁত শিল্পের রয়েছে যথেষ্ট সুনাম ও যশ।
এসময় তিনি জানান, সিরাজগঞ্জ জেলা কে অর্থনৈতিক উন্নয়নে তাঁত শিল্পের প্রতি গুরুত্ব দিয়েই আমরা সিরাজগঞ্জের ব্র্যান্ড এই তাঁতশিল্পের উন্নয়ন, পরিধি বিকাশ এবং সকলকে উৎসাহিত করার লক্ষেই এ প্রদর্শনী মেলার আয়োজন করা হয়েছে।
সিরাজগঞ্জের প্রাচীনতম ঐতিহ্য তাঁতবস্র শিল্পকে আমাদের টিকিয়ে রাখতে এবং ঐতিহ্য
সিরাজগঞ্জের ব্র্যান্ড এই তাঁতবস্র শিল্পের উন্নয়ন বিকাশে তাঁতবস্ত্রের গুনগত মান ধরে রাখতে ক্রেতা সাধারণের দোরগোড়ায় পৌছে দেয়া, এই বস্রশিল্পে কর্মসংস্থান বিস্তার করাসহ জনগণকে উৎসাহিত করতেই এ প্রদর্শনী মেলার আয়োজন করা হয়েছে।
এবারের মেলায় সর্বমোট ৩১ টি তাঁতবস্ত্রের ষ্টল অংশগ্রহণ করেছে। সকল ষ্টলগুলোতে তাঁত কুঞ্জ খ্যাত সিরাজগঞ্জে উৎপাদিত তাঁতবস্ত্র শাড়ি,চাঁদর,থ্রি-পিচ,পাঞ্জাবি, ফতুয়াসহ ঐতিহ্যবাহী তাঁতবস্র ও পোশাক সামগ্রিক এবারের মেলায় স্থান পেয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

সর্বশেষ