২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার, কোটি টাকা জরিমানা ও ১৪ বছর কারাদণ্ডের বিধান রেখে আইন পাস

শেয়ার করুনঃ

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

বাণী ডেস্ক: আলোচিত ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮’ পরিবর্তন করে নতুন ‘সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্ট-২০২৩’ জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে। বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার এবং সর্বোচ্চ শস্তি কোটি টাকা জরিমানা ও ১৪ বছরের কারাদণ্ডের বিধান রেখে এ আইন পাস করা হয়।
আজ বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বিলটি পাসের জন্য প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়।
বিল পাসের আগে জনমত যাচাইয়ের জন্য দেওয়া প্রস্তাবে আলোচনায় বিরোধী দলের সদস্যরা বিলটি বিভিন্ন ধারা নিয়ে আপত্তি তোলেন ও বিরোধিতা করেন। বিশেষ করে পরোয়ানা ছাড়া সাংবাদিকদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিয়ে তারা বিরোধিতা ও আপত্তি জানান। তবে বিরোধী দলের সদস্যদের জনমত যাচাই প্রস্তাবগুলো কণ্ঠ ভোটে নাকচ হয়ে যায় এবং বিলটি পাস করা হয়। এ সময় ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।
এ সময় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন,
‘চিন্তা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা সংবিধান স্বীকৃত হলেও অবারিত নয়। স্বাধীনতা মানে কিন্তু অন্যের অধিকার ক্ষু্ণ্ণ করা নয়। আপনার স্বাধীনতা মানে যা ইচ্ছে তা বলা নয়। অন্যকে অসম্মান করা নয়। নারীকে অশ্লীল কথা বলা নয়। এসব বিষয় নিশ্চিতকরণের কোনো বিকল্প নেই।’
তিনি বলেন, ‘আইনটির প্রয়োজনীয়তা নিয়ে বিরোধী সদস্যরা একমত পোষণ করছেন। স্বচ্ছতা, জবাবহিদিতা ও নিরাপদ স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সাইবার নিরাপত্তা আইনের বিকল্প নেই।’
এর আগে গত ২৮ আগস্ট রাজধানীর তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮’ পরিবর্তে নতুন ‘সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্ট-২০২৩’ প্রণয়নের খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
জানা যায়, এর আগে নীতিগত অনুমোদনে যা যা ছিল, তার সবই ঠিক রেখে আইনটির চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়।

সর্বশেষ