বরিশালে ঈদের নামাজে দেশ-জাতির অগ্রগতি কামনা

বরিশালে ঈদের নামাজে দেশ-জাতির অগ্রগতি কামনা

খোকন হাওলাদার ॥ বরিশালের হেমায়েত উদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে পবিত্র ঈদুল আজহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঈদের নামাজ শেষে দেশ ও জাতির অগ্রগতি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত ঈদের জামাতে বিভিন্ন রাজনৈতিক-সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা, প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাসহ নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

স্টিমারঘাট জামে মসজিদের খতিব মাওলানা শিহাব উদ্দিন বেগের ইমামতিতে হেমায়েত উদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে নামাজ আদায় করেন বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী, জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান, বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস, বরিশাল সদর উপজেলার চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টুসহ আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতা ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা। নামাজের আগে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করে বক্তব্য রাখেন বরিশাল সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী, জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান।

বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী তার বক্তব্যের শুরুতে ১৫ আগস্ট জাতির জনকসহ অন্য শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করেন।

এসময় দেশ ও জাতির অগ্রগতি কামনা করে তিনি বলেন, ত্যাগের মহিমায় কোরবানি দিয়ে প্রত্যেকের উচিত অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহায়তা করা।বিভাগীয় কমিশনার বলেন, দেশে সম্প্রতি সময়ে নানান বিষয় নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। তাতে কান না দিয়ে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ। ডেঙ্গুসহ মশার বংশবিস্তার রোধে নিজের বাড়ি ও আশপাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান তিনি। পাশাপাশি তিনি দেশের সমৃদ্ধি, ধর্মীয় সম্প্রীতি অব্যাহত রাখতে সবার প্রতি আহ্বান জানান।

এদিকে সকাল সাড়ে ৮টায় বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনই পীরের দরবার শরীফে ঈদের সর্ববৃহৎ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।অপরদিকে, বরিশাল বিভাগের দ্বিতীয় বৃহত্তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় পিরোজপুরের ছারছিনা দরবার শরীফ ময়দানে। তৃতীয় বৃহত্তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় ঝালকাঠীর এন এস কামিল মাদ্রাসা সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়।এছাড়া পটুয়াখালীর মীর্জাগঞ্জ হযরত ইয়ারউদ্দিন খলিফা (রা.) মাজার শরীফে সকাল সাড়ে ৭টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।এছাড়াও বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলার গুঠিয়া বায়তুল আমান জামে মসজিদ ও ঈদগাহ কমপ্লেক্সে বৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

তবে নগরে সর্বপ্রথম সকাল সাড়ে ৭টায় জেলগেট জামে মসজিদ, ল’কলেজ জামে মসজিদ ও মেডিক্যাল কলেজ জামে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া কেন্দ্রীয় জামে কসাই মসজিদ, জামে এবাদুল্লাহ মসজিদ, পুলিশ লাইনস জামে মসজিদ, নরিয়া স্কুল ঈদগাহ ময়দান ও জামে বায়তুল মোকাররম মসজিদে দু’টি করে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

দ্বিতীয় জামাতের মধ্য দিয়ে বরিশাল নগরের সর্বশেষ ঈদের জামাত সকাল সাড়ে ৯টায় কেন্দ্রীয় জামে কসাই মসজিদ ও জামে এবায়েদুল্লাহ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় ইমাম সমিতি বরিশাল মহানগর শাখার সভাপতি মাওলানা কাজী আব্দুল মান্নান জানান, বরিশাল মহনগরে সাড়ে ৪শ’ মসজিদ রয়েছে। যার মধ্যে ৩ শতাধিক মসজিদে ঈদের জামাত সকাল ৮টা থেকে ৯ টার মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়।

ঈদের জামাত ও পশু কোরবানিকে ঘিরে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

108 total views, 3 views today

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Comments are closed.







© All rights reserved © 2017 Barisal Bani