সোমবার, ২০ জানুয়ারী ২০২০, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
চরফ্যাশন শহরের একমাত্র খাল দখল-দূষণে পরিবেশ বিপর্যয়ের শঙ্কা ঝালকাঠিতে বৌভাতের দাওয়াত খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি অর্ধশত নলছিটিতে বউভাত খেয়ে অসুস্থ দেড় শতাধিক পিরোজপুরে অজ্ঞাত যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার কীর্তনখোলা নদীর পারের পাইলিং উচ্ছেদ বরিশালে বিনিয়োগে আগ্রহী কম্বোডিয়ান ব্যবসায়ীরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল : এমপি পংকজ নাথ সিরাজগঞ্জে ডা: হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপির শুভজন্মদিন পালিত পিরোজপুরে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের প্রতিবাদে মানববন্ধন বরিশাল বিভাগ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লোকমান- সম্পাদক মতিউর উজিরপুরের কালিহাতায় বেপরোয়া মাদক ব্যবসায়ীরা গৌরনদীতে স্বামীকে বেধড়ক কুপিয়ে জখম করলেন স্ত্রী! গৌরনদীতে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার বরিশাল রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসার নির্বাচিত হলেন মাহমুদ হাসান বরগুনায় সৌদিয়া পরিবহনের বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে শিশু নিহত উজিরপুরে বেপরোয়া মাদক ব্যবসায়ী, জুয়াড়ি ও চোরচক্ররা বরিশালে ১ বছরে ২ শত ৪০ জন মাদক ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পন, ৯০ জনকে পূর্ণবাসন সিরাজগঞ্জে ১০ দিন যাবৎ বন্ধ লোকাল ট্রেন,যাত্রীদের ভোগান্তি চরমে বরিশালে মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার অভিযোগ বক্সে গোপনে তথ্য দেয়ার জন্য আগৈলঝাড়া পুলিশের মাইকিং
এবার ছাত্রীর স্পর্শকাতর স্থানে শিক্ষকের বেত্রাঘাত!

এবার ছাত্রীর স্পর্শকাতর স্থানে শিক্ষকের বেত্রাঘাত!

ক্লাসে পড়া না পারায় নিজ হাতে ছাত্রীর ইউনিফর্ম তুলে স্পর্শকাতর জায়গায় বেত্রাঘাত করেছেন এক শিক্ষক। পরে লজ্জায় অপমানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে ওই ছাত্রী। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে রাঙামাটি মডেল কেজি স্কুল অ্যান্ড কলেজে।

শিক্ষার্থীরা জানায়, মঙ্গলবার ক্লাসে পড়া দিতে ভুল করেছিল ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী। সেদিন অনেকেই পড়া দিয়ে ব্যর্থ হয়েছিল। শিক্ষক আতাউর রহমান মোটা বেত এনে সবাইকে পিটিয়েছিলেন। আতাউর ওই ছাত্রীর ইউনিফর্ম নিজ হাতে তুলে স্পর্শকাতর জায়গায় বেত্রাঘাত করেছিলেন।
ছাত্রীরা জানায়, আতাউরের আচরণ আগে থেকেই ছিল অশালীন। প্রায়ই তিনি ওই ছাত্রীকে বলতেন ‘এমন জায়গায় মারবো কাউকে দেখাতে পারবি না।’

ঘটনার পর লজ্জায় অপমানে বাসায় ফিরে মাকে ঘটনাটা জানিয়েছিল। মা গিয়ে স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক জিল্লুর রহমানকে ঘটনাটি জানান। কিন্তু ফল হয় উল্টো। সহকারী প্রধান শিক্ষক মেয়েটির ঘাড়েই দোষ চাপান। তার সঙ্গে যোগ দেন স্কুলের শিক্ষিকা ফারজিয়া বেগম ও স্কুলের আয়া। এ দুজন মা-মেয়ের সামনেই অশ্লীল সব কথাবার্তা বলতে লাগলেন। এ দৃশ্য সহ্য করতে পারেনি অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ওই ছাত্রী। রাগে-ক্ষোভে স্কুলের ছাদে গিয়ে সেখান থেকে লাফিয়ে পড়ে সে। এখন গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে শয্যাসায়ী ছাত্রীটি।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ইংরেজির শিক্ষক আতাউর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হলেও এখনো গ্রেফতার হননি তিনি।

ছাত্রীর পরিবার জানাচ্ছে, মামলা নিতে পুলিশ শুরুতে গড়িমসি করেছিল। পরে ঢাকা থেকে কয়েকজন মানবাধিকার কর্মীর প্রচেষ্টায় পুলিশ মামলা নিলেও যৌন হয়রানির ঘটনা ধামাচাপা দিতে মামুলি ধারায় মামলাটি লিপিবদ্ধ করা হয়েছে।…….

24 total views, 1 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন







© All rights reserved © 2014 barisalbani
Design By Rana