সুন্দরবনে শুরু হচ্ছে তিনদিনের রাস উৎসব

সুন্দরবনে শুরু হচ্ছে তিনদিনের রাস উৎসব

মনির হোসেন,মোংলাঃ
সুন্দরবনের দুবলার চরের আলোর কোলে আগামী রবিবার (১০ নভেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে শত বছরের ঐতিহ্যবাহী তিন দিনের রাস উৎসব । দেশি-বিদেশি পুণ্যার্থী, ভক্ত ও পযর্টকদের স্বাগত জানাতে প্রতি বছরের মতো এবারও আয়োজন করা হয়েছে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের। তিনদিনব্যাপী রাস উৎসব উপলক্ষ্যে ইতিমধ্যেই  সবধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে মেলা উদযাপন কমিটি। এ উৎসবকে ঘিরে দুবলার চরের আলোর কোলে বসছে রাস মেলা। সুন্দরবনে প্রবেশে বন বিভাগ ৮টি রুট নির্ধারণ করেছে। এসব রুট দিয়ে নৌকা,  ট্রলার, লঞ্চ ও অন্যান্য নৌযানযোগে পুণ্যার্থী ও দর্শনার্থীরা যাত্রা করতে পারবেন। তবে এবার এই উৎসবের সময় বন্যপ্রাণী বাঁচাতে তিনদিন সুন্দরবনে সব ধরণের পাস-পারমিট বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বন বিভাগ। পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, প্রায় দুই শত বছরের পুরনো এই ঐতিহাসিক রাস উৎসবকে ঘিরে বঙ্গোপসাগর উপকূলে এবার সুন্দরবন বিভাগের ১৮টি টহল টিমের পাশাপাশি কোস্টগার্ড বাহিনী, র‌্যাব, নৌ-বাহিনী ও পুলিশ নিয়োজিত থাকবে। এবার রাস মেলা উপলক্ষে তিনদিন সুন্দরবনে মাছ শিকারসহ সকল ধরনের পাশ পারমিট বন্ধ থাকবে। হরিণসহ বন্য প্রাণী শিকার রোধে ভ্রাম্যমান টিমকে শক্তিশালী করা হয়েছে। পুণ্যার্থী ও দর্শনার্থীরা কোন প্রকার মাংস, এমনকি ছাগল-মুরগীও সাথে নিয়ে সুন্দরবনে ঢুকতে পারবে না। এবারই প্রথম অন্য ধর্মের দর্শনার্থীদের রাস উৎসবে যোগ দিতে পর্যটকদের ন্যায় রাজস্ব প্রদান করতে হবে।

এবার সুন্দরবনের রাস উৎসবে যেতে ৮টি রুট নির্ধারন করাছে সুন্দরবন বিভাগ। এই ৮টি রুট হচ্ছে, ঢাংমারী স্টেশন হয়ে পশুর নদী দিয়ে দুবলারচর, বগি-বলেশ্বর হয়ে দুবলারচর, শরণখোলা স্টেশন হয়ে দুবলারচর, বুড়িগোয়ালিনী থেকে বাটুলানদী-বল নদী হয়ে দুবলারচর, কদমতলা থেকে ইছামতি নদী হয়ে দুবলারচর, কৈখালী স্টেশন হয়ে আড়পাঙ্গাসিয়া হয়ে দুবলারচর, কয়রা শিবসা হয়ে দুবলারচর ও নালিয়ান স্টেশন হয়ে শিবসা-মরজাত নদী দিয়ে দুবলারচর।
সুন্দরবনের রাস উৎসবের আয়োজকরা জানান, প্রতি বছর অগ্রহায়ণ মাসের ভরা পূর্ণিমায় সাগর পাড়ের দুবলার চরে অনুষ্ঠিত হয় তিন দিনব্যাপী রাস উৎসব। এ উপলক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন স্থান ও প্রতিবেশী দেশসহ দেশি-বিদেশি লক্ষাধিক দর্শনার্থী এবং তীর্থ যাত্রীর ঢল নামে সুন্দরবনের দুবলারচরে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে, মোংলা কোস্টগার্ড বাহিনী পশ্চিম জোন’র গোয়েন্দা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বলেন, সুন্দরবনে রাস মেলার দর্শনার্থীদের নিরাপত্তায় অন্যান্য বাহিনীর সাথে সমন্বয় রেখে কাজ করবে কোস্টগার্ড বাহিনীর কয়েকটি টিম। পর্যটকদের নিরাপত্তা নির্বিঘ্ন করতে কোস্টগার্ডের জাহাজ নিয়মিত টহলে থাকবে।

156 total views, 6 views today

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Comments are closed.







© All rights reserved © 2017 Barisal Bani