বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:২৯ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
ববি অফিসার্স এসোসিয়েশন নির্বাচনে কোষাধ্যক্ষ হলেন বাদলপাড়ার কৃতিসন্তান জসিম চরফ্যাশনে মাদ্রাসা ছাত্রীকে প্রাননাশের হুমকি দেয়ায় বখাটে আটক কলাপাড়ায় ১৭ লাখ টাকায় অধ্যক্ষ নিয়োগ, ১০টার পরীক্ষা ১১টায় বরিশালে ট্রিপল মার্ডার: প্রবাসীর স্ত্রী কারাগারে পিরোজপুরে নির্মান কাজে অনিয়ম থাকায় স্কুলের কাজ বন্ধ করে দিলো এলাকাবাসী রাজাপুরে ইউএনও’র হস্তপেক্ষে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো পিইসি পরীক্ষার্থী সিরাজগঞ্জ জেলার সর্বোচ্চ করদাতার পুরস্কার পেলেন আলহাজ্ব মোঃ আলতাফ হোসেন আগৈলঝাড়ায় শিক্ষার্থীকে হল থেকে বাড়ি পাঠানো প্রধান শিক্ষকের শাস্তির সুপারিশ মোংলায় সুন্দরবন পরিদর্শনে জাতিসংঘের ইউনেস্কো প্রতিনিধি দল মঠবাড়িয়ায় দুই দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ জেলের মাদারীপুরের বাংলাবাজার এলাকায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৭ সিরাজগঞ্জে পূনঃণির্মানাধীন বাস টার্মিনাল পরিদর্শন করেন পৌর মেয়র পিরোজপুরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে পন্ড দেশের সকল ভ্যাট প্রদানকারী গর্বিত নাগরিকদের শুভেচ্ছা : পুলিশ কমিশনার ঝালকাঠিতে মাদক ছেড়ে ‘আলোর পথে’ ২৩ কারবারি গৃহবধূর আপত্তিকর ছবি ছড়িয়ে দেওয়ায় মঠবাড়িয়ার নাসির গ্রেপ্তার বরিশালে সহকর্মীকে মারধর করা সেই শিক্ষিকা বরখাস্ত ছাত্রলীগ নেত্রী মৌলির জানাজায় মানুষের ঢল বরিশালে যাত্রীবাহী লঞ্চ থেকে ১২শ কেজি জাটকা উদ্ধার শেবাচিমে ওষুধ প্রতিনিধিদের দৌরাত্ম, রোগীদের দুর্ভোগ
ক্রাইম রিপোর্টার পরিচয়ে চাঁদা আনতে গিয়ে ভুয়া সাংবাদিক আটক

ক্রাইম রিপোর্টার পরিচয়ে চাঁদা আনতে গিয়ে ভুয়া সাংবাদিক আটক

অনলাইন ডেস্ক: চাঁদা না দিলেই হবে ক্রাইম রিপোর্ট— এমন হুমকি দিয়ে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে গিয়ে পাঁচলাইশ পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হলো কথিত সাংবাদিক।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম নগরীর নাসিরাবাদ হাউজিং সোসাইটির ৩ নম্বর রোডের ৭ নম্বর বাড়ির বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফা কামালের বাসস্থানে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদা দাবি করতে গিয়ে জিয়াউল হক জিয়া (৩৫) বছরের এক যুবক গ্রেপ্তার হয়েছেন। শনিবার (৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে বারোটায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

৭ নম্বর বাড়ির নিচতলার বাসিন্দা মোস্তফা কামাল বলেন, ‘৭ নভেম্বর আমি বাসায় ছিলাম না। তখন জিয়াউল হক জিয়া নামে একজন নিজেকে ক্রাইম পেট্রোল নিউজ ২৪ ডটকমের ক্রাইম রিপোর্টার পরিচয় দিয়ে আমার বাসায় প্রবেশ করে। তখন আমার স্ত্রী ছিল বাসায়। জিয়া নামের সেই কথিত সাংবাদিক তখন আমার স্ত্রীকে ভয় দেখায় যে সে অনেক বড় ক্রাইম রিপোর্টার। আমাকে নিয়ে সে অনেক বড় ক্রাইম রিপোর্ট করে দিবে। এতে আমি ফেঁসে যাবো। এসব ভয় দেখালে আমার স্ত্রী ভয় পেয়ে ওর হাতে থাকা পাঁচশো টাকা দেন। জিয়া তার একটা ভিজিটিং কার্ড দিয়ে বলে যায় যে আমি যেনো তার সাথে কথা বলি তা না হলে অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যাবে আমার। পরে আমি বাসায় ফিরলে আমার স্ত্রী কান্নারত অবস্থায় আমায় এসব খুলে বলে।

তারপর ৮ নভেম্বর প্রদত্ত নম্বরে কল করলে সে বলে আমার সাথে দেখা করতে চায়। দেখা না করলে আমার অনেক ক্ষতি করবে। তখন আমিও বলি আচ্ছা আপনি বাসায় আসেন। তখন তিনি রাত ১০ টার সময় আমার বাসায় আসেন। বাসায় আসলে আমার সন্দেহ হলে কৌশলে দারোয়ানকে গেইট বন্ধ করে দিতে বলি এবং পাশ্ববর্তী কিছু লোকজনকে ডেকে আনি। পাঁচলাইশ থানায় খবর দিলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে জিয়া জানায় তার সাথে কোর্ট বিল্ডিংয়ের ফারুক নামে একজন আছে যে তাকে এভাবে অনেক টাকা আদায় করার পরামর্শ দিয়েছে। রাত সাড়ে ১২ টা নাগাদ পুলিশ এসে তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, ‘জানি না এই জিয়া আসলে কোনো সাংবাদিক কি না। আর যদি সাংবাদিক হয়েও থাকে তাহলে আমাদের মতো সাধারণ মানুষকে এভাবে হেনস্তা করলে আমরা কই যাবো?’

এ নিয়ে পাঁচলাইশ থানার ওসি আবুল কাশেম ভুঁইয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে জিয়াউল হক জিয়াকে গ্রেপ্তার করি। তার কাছে সাংবাদিক পরিচয়ে একটি কার্ডও রয়েছে। সে ভুয়া না আসল সাংবাদিক কেবল সেটার ভিত্তিতে তাকে আমরা গ্রেপ্তার করিনি। এই ঘটনার সাথে জড়িত ফারুক কে বা এ ঘটনায় তার কোনো যোগসূত্র আছে কিনা তা তদন্ত করছি।

তাকে চাঁদাবাজির মামলা দিয়ে কোর্টে চালান করে দেয়া হয়েছে বলে জানান ওসি।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন







© All rights reserved © 2014 barisalbani
Design By Rana