মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৭:২৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বিশ্বকাপ বিজয়ী তৌহিদ হৃদয়কে গণসংবর্ধনা অস্তিত্ব সংকটে বাকেরগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী ’শ্রীমন্ত নদী’ আশি পেরিয়েও আনিসুজ্জামানের কর্মব্যস্ত জীবন বরিশালে টক অব দ্যা টাউন ‘নানক-জাহিদ বৈঠক’ বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটির দুই দশক পূর্তি উৎসব কাল নানক-জাহিদ বৈঠকঃ বরিশাল আ’লীগে তোলপাড় ! বরিশালে হাওয়ায় দুলছে আমের সোনালী মুকুল: বাম্পার ফলনের আশা পিরোজপুরের শিক্ষিকাকে শ্লীলতাহানীর চেষ্টায় যুবকের কারাদন্ড বরগুনায় চীনফেরত শিক্ষার্থী জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় ৩দিন ব্যাপী ওয়াজ মাহফিল মাদারীপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থীর মাথা রক্তাক্ত করলেন শিক্ষক উজিরপুরে মাদ্রাসার দাতা সদস্যকে কুপিয়ে জখম নলছিটিতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু উজিরপুরে বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে আগুন নলছিটিতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন সাংবাদিক আতিকের পিতা পিরোজপুরে ভূয়া পাসপোর্ট করতে এসে এক রোহিঙ্গা যুবক আটক ভাণ্ডারিয়ায় পাসপোর্ট করাতে এসে রোহিঙ্গা নাগরিক আটক আগৈলঝাড়ায় অপহৃতা স্কুল ছাত্রী উদ্ধার, অপহরনকারী গ্রেফতার গৌরনদীতে স্কুল বন্ধ রেখে বনভোজনে হিরিক
গানে ও কবিতায় ভালবাসা……

গানে ও কবিতায় ভালবাসা……

বেলায়েত বাবলু :

গত বছর ১৩ ফেব্রুয়ারি বসন্তকে বরন করা হয়েছে। আর তারপর অর্থাৎ ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালবাসা দিবস পালিত হয়েছে। কিন্তু পঞ্জিতামতে এবছর আজ ১৪ ফেব্র“য়ারি বসন্তের শুরু। চারিদিকে শোনা যাচ্ছে বসন্ত এসে গেছে, অথবা ফুল ফুটুক আর নাইবা ফুটুক আজ বসন্ত। বসন্ত বরনে সারাদেশের ন্যায় বরিশালেও এ উপলক্ষ্যে নানান কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। ঋতুপ্রেমীদের কাছে আজকের দিনটি অন্যরকম এক উৎসবের। পাশাপাশি আজ ১৪ ফেব্র“য়ারি বিশ্ব ভালবাসা দিবস। দুটো শুভ দিনকে ঘিরে নগরজুড়ে উৎসবের আমেজ পরিলক্ষিত হচ্ছে। ভালবাসা দিবসটি আরম্ভরে পালনের জন্য গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশেও ব্যাপক আয়োজন থাকে। চ্যানেলগুলোতে থাকে বিশেষ আয়োজন। ভালবাসার মানুষদের সরব উপস্থিতি মুখরিত করে তুলে নগরীর বিনোদন কেন্দ্রগুলো। জমজমাট থাকে ফুল বিক্রির দোকান ও অভিজাত খাবারের দোকানগুলো। একটা সময় মানুষ পত্র লিখে তার ভালবাসার কথা তার প্রিয়জনকে জানাতো। তা অনেক আগেই বাতিলের খাতায় চলে যাওয়ায় কেউ এখন আর ডাক পিয়নের খোঁজ নেয়না। তাইতো মাকসুদের কন্ঠের সেই গানটি আর কেউ গায়না….আজ তোমার চিঠি যদি না পেলাম হায়, আমি ভেবে নেবো ডাক পিয়নের অসুখ হয়েছে।’ চিঠি চালাচালি বন্ধ হওয়ার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত শুভেচ্ছা জানানোর আরেকটি মাধ্যম ছিল কার্ড। বিভিন্ন দিবসে আমরা একে অন্যের মধ্যে কার্ড বিনিময় করতাম। যাক সেটাও এখন অতীত হয়ে গেছে। আধুনিক যুগে এসে আমাদের ভাব প্রকাশের সবকিছু যেন পরিবর্তন হয়ে গেছে। ফুলের কদরও কমেছে অনেকাংশে। ভালবাসা দিবস নিয়ে কিছু লেখার তাগিদেই আজ লিখতে বসা। কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর একজন মহা পন্ডিত ছিলেন এটা একবাক্যে সবাই মেনে নিবেন। কিন্তু মহাজ্ঞানী কবি গুরুও ভালবাসা কারে কয় তার উত্তর মিলাতে পারেননি। তিনি লিখেছেন,, তোমরা যে দিবা নিশি বলো ভালবাসা, ভালবাসা। সখী ভালবাসা কারে কয়, সে যে কেবলই যাতনাময়।’ কোন এক কারনে তার কাছে ভালবাসাকে যাতনাময় মনে হয়েছে। আবার তিনিই লিখেছেন, ভালবেসে সখী নিভৃত যতনে, আমার নামটি লিখো তোমার মনেরও মন্দিরে’ অথবা আমি নিশিদিন তোমায়, ভালবাসি, তুমি অবসর মতো বাসিয়ো, নিশিদিন হেথায় বসে আছি, তোমার যখন মনে পড়ে আসিয়ো।’ কবি গুরুর পাশাপাশি বিদ্রোহী কবি নজরুল ইসলামও ভালবাসা নিয়ে নানান কবিতা, গান রচনা করেছেন। কবি গুরুর মতো তাঁর কাছেও ভালবাসা নানা ভাবে ধরা দিয়েছিলো। তিনি লিখেছেন, তুমি সুন্দর তাই চেয়ে থাকি প্রিয় সেকি মোর অপরাধ। তাঁর ভাষায়-পৃথিবীর যা কিছু সৃষ্টির চির কল্যানকর, অর্ধেত তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর। আবার প্রেম ভালবাসার কবি কাজী নজরুল ইসলামই লিখেছেন, নারী নাহি হতে চায় শুধু একা কারো, এরা লোভী, এরা দেবী, যতো পূজা পায় ততো আরো চায় ইহাদের মন। একজনে তুষ্ট নহে যাচে বহুজন।’ কবিগুরু, বিদ্রোহী কবিসহ খ্যাতিমান কবি, লেখকরা ভালবাসা নিয়ে বহু গান, কবিতা রচনা করেছেন। কবি রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহ ভালবাসতে বাসতে ফতুর করে দেয়ার কথা বলেছিলেন। সঙ্গীত শিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ গানে গানে বলেছেন,,কেউ বলে ভালবাসা সুখের নদী, কেউ বলে ভালবাসা স্বপ্ন গীতি। কেউ বলে ভালবাসা দক্ষিণা হাওয়া আজীবন মনে মনে তোমারে চাওয়া, আর আমি বলি ভালবাসা, ভালবাসা দুদিনের ঝড়ে যাওয়া ফুল, ভালবাসা হৃদয়ের বেদনা বকুল। ভারতের বিখ্যাত কন্ঠ শিল্পী কবির সুমন প্রথম থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত তার ভালবাসার মানুষটাকেই চেয়েছেন। আবার আমাদের দেশের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী প্রিতম গানে গানে বালিকাদের প্রতি হুশিয়ারি উচ্চারন করেছেন। তিনি বলেছেন, বালিকা তোমার প্রেমের পদ্ম দিওনা এমন জনকে যে ফুলে ফুলে উড়ে মধু পান করে অবশেষে ভাঙ্গে মনকে। একটা হৃদয় বারবার নয়, একবারই প্রেমে পড়ে। সেই হৃদয়ের সুখ লুট হয় নিঠুর মৌন ঝড়ে। হও হুশিয়ার মনের দুয়ারে নজর রাখো খুব, চোখের ফাকিতে ঠোটের হাসিতে হইওনা উৎসুক, বালিকা উড়ে যাবে সুখ। ইদানীং ময়মনসিংয়ের আরেকটি প্রচলিত গান দেশজুড়ে বেশ সাড়া ফেলেছে…আখ ক্ষেতে ছাগল বন্দি, জালে বন্দি মাছ, নারীর কাছে পুরুষ বন্দি, ঘুরায় বারো মাস, সখীগো আমার মন ভালোনা, কালার লগে পিরীত কইরা সুখতো পাইলাম না। গানটিতে প্রেম করে সুখ না পাওয়ার কথা বলা হয়েছে। আবার এ গানে নারীদের নানাভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। মিলন হবে কতো দিনে আমার মনের মানুষেরও শনে, আমার মনের মানুষেরও শনে’ এ আক্ষেপ বা প্রশ্নের জবাব যেমন সহসায় পাওয়া যায়না। আসলে ভালবাসা একেক জনের কাছে একেক রকমের। আঙ্গুর না খেতে পেলে অনেকে তাকে নাকি টক বলে। আবার যে ভালবাসা পেয়ে সুখে সংসার করছে তার কাছে ভালবাসা হচ্ছে..জীবন ফুরিয়ে যাবে ভালবাসা ফুরাবে না কখনো, মোরা আরো আগে কেন আসিনি, কেন আসিনি এই ভুবনে।’’ভালবাসা দিবস ও বসন্তের এই শুভ ক্ষনে সবাইকে অনেক অনেক প্রীতি ও অফুরান শুভেচ্ছা। জয় হোক ভালবাসার, জয় হোক মানবতার।

216 total views, 4 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন







© All rights reserved © 2014 barisalbani
Design By Rana