বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১১:১৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
ঝালকাঠিতে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম মঠবাড়িয়ায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার বাবুগঞ্জের সাইদুলের কাছে হারল ইসির শতকোটি টাকার সিস্টেম রিফাত হত্যা মামলায় দুই সাক্ষীকে টেন্ডার ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পেলেন পবিপ্রবির ৭ শিক্ষার্থী মুলাদিতে পাগলীর সন্তান প্রসব, খোঁজ মিলছে না বাবার! বরিশালে দুধ গরম করতে দেরী হওয়ায় স্ত্রীকে মেরেই ফেললো ছাত্রলীগ নেতা বরিশালে স্বামীর নির্যাতনেই মারা গেছে ছাত্রলীগ নেত্রী হেনা! গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপে স্বামী ও সন্তান ফিরে পেলো লিনা বরিশালে কুড়িয়ে পাওয়া সেই শিশুটি ধর্ষিত : পুলিশ বরিশালে চরে আটকা লঞ্চ, খাবার সংকটে ১৭শ যাত্রী ববি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকারীদের বহিষ্কারের দাবিতে মানববন্ধন বামনায় ছাত্রীকে আপত্তিকর ছবি পাঠানো সেই কলেজশিক্ষক বহিষ্কার লাখো মুসল্লির কলরবে ঐতিহাসিক চরমোনাই মাহফিল শুরু অচল হয়ে পড়েছে বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের দপ্তর বরিশালে একই দিনে দুটি মামলায় ‘স্বাস্থ্য সহকারী’র কারাদন্ড ব‌বিতে ক‌ক্ষে আটকে ছাত্র নির্যাতন শরীয়তপুরে স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার ঈমান ও হিংসা এক সঙ্গে একই অন্তরে থাকতে পারে না- নজরুল ইসলাম তোফা মোংলায় শ্রমে নিযুক্ত শিশুদের স্কুলগামী করতে আলোচনা সভা
শেবাচিমে নার্সের পর্ণোভিডিও ভাইরালঃ নার্সিং অধিদপ্তরের তদন্তকমিটি গঠন

শেবাচিমে নার্সের পর্ণোভিডিও ভাইরালঃ নার্সিং অধিদপ্তরের তদন্তকমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স (ব্রাদার) রফিকুল ইসলামের পর্ণো ভিডিও ভাইরালের ঘটনায় নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর থেকে আরেকটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। গত ৯ ফেব্রুয়ারী বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য কার্যালয়ের নার্সিংয়ের সহকারি পরিচালক মলিনা রানী মন্ডলকে তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ করে অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক (প্রশাসন) ফিরোজা বেগম স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে। এছাড়া ওই আদেশে আগামী ৫ কর্মদিবসের মধ্যে মলিনা রানীকে তদন্তপূর্বক মতামতসহ তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে।
এ বিষয়ে বিভাগীয় স্বাস্থ্য কার্যালয়ের নার্সিংয়ের সহকারি পরিচালক মলিনা রানী মন্ডল জানান, অফিস আদেশ পেয়ে আমি ইতিমধ্যে তদন্ত কাজ শুরু করে দিয়েছি। ৫ কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হলেও তদন্তের স্বার্থে আমি আরো সময় চাইতে পারি। রফিকের ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওটি আমি পেয়েছি। পর্যালোচনা করে ভিডিওটি রফিকেরই মনে হয়।
অপরদিকে রফিকের বিরুদ্ধে শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালকের করে দেয়া তদন্ত কমিটির তদন্ত কাজ চলমান রয়েছে। গত ৯ ফেব্রুয়ারী হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. জসিম উদ্দিনকে প্রধান করে গঠিত এই তদন্ত কমিটিকে ১৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে পরিচালকের কাছে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। কমিটিতে সদস্য হিসেবে রয়েছেন, শেবাচিম হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. মনিরুজ্জামান শাহীন ও উপ-সেবা তত্ত্বাবধায়ক মাকসুদা বেগম।
জানাগেছে, ‘বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়া এলাকার ওয়াজেদ আলীর ছেলে শেবাচিম হাসপাতালের মহিলা অর্থপেডিক্স ওয়ার্ডে সিনিয়র স্টাফ নার্স পদে কর্মরত রফিকুল ইসলামের একটি পর্ণো ভিডিও সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে। ২০ মিনিট ৩৯ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটিতে তার সাথে এক নারীকে আপত্তিকর অবস্থায় অন্তরঙ্গ মুহুর্তে দেখা যায়। পর্ণো ভিডিওতে থাকা ওই নারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা কোন এক রোগীর স্বজন বলে দাবি রফিকুলের স্ত্রী ও সহকর্মীদের।
এ বিষয়ে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. বাকির হোসেন বলেন, ‘ঘটনাটি শুনেছি। এটি তদন্তের জন্য একটি কমিটি গঠন করে দেয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটির রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

2,081 total views, 15 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন







© All rights reserved © 2014 barisalbani
Design By Rana